অর্থের অভাবে উন্নত চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত টিউমারে আক্রান্ত শিশু সাকিব

fec-image

 

কক্সবাজারের চকরিয়ায় টিউমারে আক্রান্ত দিনমজুর রফিক উদ্দিনের আটমাস বয়সের শিশু সন্তান মোহাম্মদ সাকিব। সন্তানের ব্যয়বহুল চিকিৎসায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অর্থের অভাবে অপারগ হয়ে পড়েছেন তিনি। তাই নিজের আটমাস বয়সী শিশু ছেলেকে উন্নত চিকিৎসা দিয়ে বাঁচাতে  দেশের বিত্তশালীদের কাছে আর্থিক সহযোগিতা কামনা করেছেন তিনি।

চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের ৫নম্বর ওয়ার্ডের ষোলহিচ্ছা গ্রামের বাসিন্দা রফিক উদ্দিন। গত ২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে জন্মগ্রহণ করে তার শিশু সন্তান সাকিব। জন্মের পর সাকিবের কপালের নিচে নাকের উপরে এক জায়গায় একটু উঁচু দেখা যায়। এরপর থেকেই চিকিৎসা চলতে থাকে শিশু সাকিবের। কিন্তু সেটি ধীরে ধীরে বড় হতে থাকে। বাড়তে থাকে চিকিৎসার ব্যয়ভার।

বসতভিটা ছাড়া রফিক উদ্দিনের আর কোনো সহায় সম্পদ নেই। তিনি বলেন, ফুটফুটে শিশু সাকিবকে নিয়ে পরিবারের সবাই হতাশাগ্রস্ত। চিকিৎসকরা বলেছেন, উন্নত চিকিৎসা করলে শিশু সাকিবকে বাঁচানো সম্ভব। এতে শিশু সাকিবকে বাঁচাতে অন্তত তার দুই লাখ টাকা দরকার। বর্তমানে শিশু সাকিব ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শিশু সার্জারি ২০৪ নম্বর ওয়ার্ডের ৩৩ নম্বর বেডে বিগত এক মাস ধরে ডা: রাজিউল হকের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

শিশুটির মা ছেনুয়ারা বেগম বলেন, আমি মা হিসেবে আটমাস বয়সী এ নিষ্পাপ শিশুর অসহনীয় কষ্ট কী করে সহ্য করি। ছেলেকে নিয়ে আমি সারারাত ঘুমাতে পারি না। অসহ্য যন্ত্রণায় সাকিব শুধু অঝোরে কাঁদে। তার যন্ত্রনা ও কান্নার অবস্থা দেখে আমাদের খাওয়া, দাওয়া ও চোখের ঘুম নেই।

স্থানীয়রা বলেন, শিশু সাকিবকে উন্নত চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ করে পৃথিবীতে বেঁচে থাকার সুযোগ করে দিতে চকরিয়া-পেকুয়া আসনের জাতীয় সংসদ সদস্যসহ সবার কাছে এমনটা প্রত্যাশা করেন। সাকিবের উন্নত চিকিৎসার জন্য কমপক্ষে দুই লাখ টাকা প্রয়োজন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seven + 18 =

আরও পড়ুন