“২০১৫ অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপেও ইংল্যান্ড বধ করেছিল বাংলাদেশ। ”

আজ ‘হ্যাটট্রিক’ জয়ের মিশনে বাংলাদেশ

fec-image

 

টানা তিন বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে হারানোর উপলক্ষ বাংলাদেশের সামনে। ২০১১ বিশ্বকাপের পর ২০১৫ সালের আসরেও ইংলিশদের হারিয়েছিল বাংলাদেশ। এবার ‘হ্যাটট্রিক’ জয়ের মিশনে আজ (শনিবার) কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনসে বাংলাদেশ সময় সাড়ে ৩টায় মাঠে নামবে টাইগাররা।

২০১১ সালে ঘরের মাঠের বিশ্বকাপে চট্টগ্রামে জিতেছিল বাংলাদেশ। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ওই ম্যাচে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে নাঈম ইসলাম, আব্দুর রাজ্জাক ও সাকিব আল হাসানের ঘূর্ণিতে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে ২২৫ রানে শেষ হয় ইংলিশদের ইনিংস। সহজ লক্ষ্যে বাংলাদেশের শুরুটা ভালো হলেও মিডল অর্ডার ভেঙে পড়ে। পেসার শফিউল ইসলামের ২৪ রানের সময় উপযোগী ইনিংসে ২ উইকেটের জয় পায় বাংলাদেশ।

২০১৫ অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপেও ইংল্যান্ড বধ করেছিল বাংলাদেশ। আগে ব্যাটিং করা টাইগাররা মাহমুদউল্লাহর সেঞ্চুরিতে ২৭৫ রানের সংগ্রহ দাঁড় করায়। এরপর রুবেল হোসেনের বোলিং তোপে ২৬০ রানেই অলআউট হয় এউইন মরগানরা। মাশরাফিরা পায় ১৫ রানের জয়।

আজকের ম্যাচের আগে বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের সঙ্গে তিনবার দেখা হয়েছে বাংলাদেশের। দুই জয়ের বিপরীতে ২০০৭ সালের আসরেই কেবল হারের তিক্ততা আছে মাশরাফিদের। বড় মঞ্চে ইংলিশদের বিপক্ষে জয়ের পরিসংখ্যানই ভারি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিশ্বকাপে সুপার এইটে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হারা দলটির সঙ্গে এখনকার বাংলাদেশের পার্থক্য অনেক। সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সে বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডেকে হারানোর সুখ স্মৃতিই কেবল সঙ্গী টাইগারদের।

ঘটনাপ্রবাহ: ‘হ্যাটট্রিক’, জয়ের, বাংলাদেশ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ten + 5 =

আরও পড়ুন