আরাকান আর্মি‌’র ২০২০ সালেই ৫ শহর দখলের পরিকল্পনা

ডেস্ক রিপোর্ট:

মিয়ানমারের রোহিঙ্গা অধ্যুষিত রাখাইন প্রদেশের উত্তরাঞ্চলীয় পাঁচটি শহর দখলের পরিকল্পনা করছে সশস্ত্র বিদ্রোহী সংগঠন আরাকান আর্মি ( এএ)। ২০২০ সালের মধ্যে রাখাইনের পেলেতোয়া, কিয়াকতো, মারুক-উ শহর দখল করার পরিকল্পনা করছে সশস্ত্র দলটি ।

সম্প্রতি রাখাইনে আরাকান আর্মির যে হামলা শুরু হয়েছে তার বিশ্লেষণ করে এমন আশঙ্কা করছেন দেশটির প্রাদেশিক পার্লামেন্টে সেনাবাহিনীর প্রতিনিধি মেজর থেট ও মং।

মিয়ানমারের দৈনিক ইরাবতির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, গত বুধবার রাখাইন পার্লামেন্টে এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাবনা উত্থাপন করেছেন ওই মেজর। এসময় তিনি পার্লামেন্টে উত্থাপিত ওই প্রস্তাবনার পক্ষে রাখাইনের মানুষকে সেনাবাহিনীকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানান।

পার্লামেন্ট অধিবেশনে মেজর থেট ও মং বলেন, আরাকান আর্মি ‘‘আরাকান ড্রিম-২০২০’’ মিশনের আওতায় আগামী বছরের মধ্যে রাখাইনের পেলেতোয়া, কিয়াকতো, মারুক-উ শহর দখল করার পরিকল্পনা করছে।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, আরকান আর্মি ও আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মির (আরসা) মায়ু অঞ্চলের বুথিডং ও মংগদু শহরে হামলা চালাচ্ছে। অবশ্য আরাকানি আর্মির কমান্ডার সেনাবাহিনীর তোলা এমন অভিযোগ আগে থেকেই অস্বীকার করে আসছেন।

আরাকান আর্মির মুখপাত্র উ খিন থুখা ওই সেনা প্রতিনিধির এমন প্রস্তাবনাকে ‘হাস্যকর’ বলে উড়িয়ে দিয়েছেন। তিনি রাখাইনে আরাকান আর্মি এবং সেনাবাহিনীর জনপ্রিয়তা যাচাই করার জন্য সেনাবাহিনীকে গণভোট আয়োজন করার আহ্বান জানিয়েছেন। পার্লামেন্টকে ব্যবহার করে রাখাইনের জনগণের ওপর প্রভাব খাটানোর নিন্দা করেন আরাকান আর্মির ওই মুখপাত্র।

ঘটনাপ্রবাহ: ২০২০ সালেই, ৫ শহর, আরাকান আর্মি‌’র

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × two =

আরও পড়ুন