“৫০ পিস ইয়াবাসহ আটক হওয়া এক মাদক ব্যবসায়ীর তথ্যের ভিত্তিতে খাগড়াছড়ি সদর সার্কেল থেকে এসআই সাইদুর রহমানকে ক্লোজড করা হয়।”
ইয়াবা বিক্রির সন্দেহে

খাগড়াছড়ি সদর থানার এসআই সাইদুর ক্লোজড, আটক ১

fec-image

 

ইয়াবা বিক্রির সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে খাগড়াছড়ি সদর থানার এসআই সাইদুর রহমানকে ক্লোজড করে পুলিশ লাইন্সে পাঠানো হয়েছে।

সোমবার(১০ জুন) সন্ধ্যায় খাগড়াছড়ি জেলা সদরের মুসলিমপাড়ায় জনতার হাতে ৫০ পিস ইয়াবাসহ আটক হওয়া এক মাদক ব্যবসায়ীর তথ্যের ভিত্তিতে খাগড়াছড়ি সদর সার্কেল থেকে এসআই সাইদুর রহমানকে ক্লোজড করা হয়। ইয়াবাসহ আটক মাদক ব্যবসায়ী অর্জুন বসাক জেলা সদরের সিঙ্গিনালা এলাকার দুলাল বসাকের ছেলে।

খাগড়াছড়ি পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. শাহ আলম জানান, দীর্ঘদিন ধরে মুসলিমপাড়া এলাকার ভাড়া বাসা থেকে এক পুলিশ কর্মকর্তা মাদক ব্যবসা করছে বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করে। সোমবার বিকেলে ৫০ পিস ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে স্থানীয়রা আটকের পর এসআই সাইদুরের নাম বেরিয়ে আসে। এক পর্যায়ে এলাকার উত্তেজিত জনতা বাড়িটি ঘেরাও করে রাখে। পুলিশকে জানানোর পর পুলিশ এসে দুইজনকে থানায় নিয়ে যায়।

খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) সাহাদাত হোসেন টিটো বলেন, মাদকসহ আটক যুবকের বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের হচ্ছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে খাগড়াছড়ি সদর সার্কেলের এসআই সাইদুর রহমানকে পুলিশ লাইন্সে ক্লোজড করা হয়েছে।

খাগড়াছড়ি সদর সার্কেলের এএসপি রওনক আনম বলেন, পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ উঠায় তাকে ক্লোজড করা হয়েছে। বিভাগীয় তদন্ত শেষে ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি জানান, অর্জুন বসাক আট হাজার টাকা দিয়ে ৫০ পিস ইয়াবা এসআই সাইদুর রহমান থেকে কিনেছে বলে জানালে ওই এসআই-এর বাসা তল্লাশী করে কথিত আট হাজার টাকা উদ্ধার ও কোন মাদক পাওয়া যায়নি।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আটক, ইয়াবা, এসআই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × three =

আরও পড়ুন