কাপ্তাইয়ে জোড়া খুনের ঘটনায় জেলে দুই ইউপি চেয়ারম্যান

fec-image

কাপ্তাই উপজেলার রাইখালীতে জোড়া খুনের এজাহারভুক্ত আসামী দুই ইউপি চেয়ারম্যানকে জেল হাজতে পাঠিয়েছেন আদালত।

বুধবার (১৫ মে) দুপুরে রাঙ্গামাটি চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হত্যার দায় শিকার করে জামিন চাইলে বিচারক মো. বেলাল হোসেন আসামীদের জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

এরা হলেন- কাপ্তাই উপজেলা জেএসএস এর সেক্রেটারি ও ২নং রাইখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সায়া মং মারমা এবং কাপ্তাই উপজেলা জেএসএস এর সাংগঠনিক সম্পাদক ও ৩নং চিৎমরম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যাইসা অং মারমা

এ বিষয়ে রাঙ্গামাটি কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) মো. আমির হোসেন জিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, রাইখালী ৪ ফেব্রুয়ারি কারিগর পাড়া এলাকায় একটি মুদি দোকানে বসে নাস্তা খাওয়ার সময় আওয়ামী লীগ নেতা মংসুউনু মারমা (৪২) এবং জাকির হোসেন (২৫) কে এলোপাথারি ব্রাশফায়ার করলে ঘটনাস্থলে তাদের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় মংসানু মারমার শ্বশুর আপ্রু মারমা বাদি হয়ে ২১ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা আরও ১০ থেকে ১৫ জনকে আসামী করে চন্দ্রঘোনা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

চন্দ্রঘোনা থানা (ওসি) আশ্রাফ আহমেদ বলেন, রাইখালীতে ডাবল মার্ডারের ঘটনায় দুই ইউপি চেয়ারম্যানকে আটকের খবর শুনেছি। তবে কোন কাগজ হাতে পাইনি। এ দুই চেয়ারম্যান থানার এজারহারভুক্ত আসামি বলেও জানান তিনি।

এ ব্যাপারে কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশ্রাফ আহমেদ রাসেল বলেন, মৌখিকভাবে শুনেছি তারা দু’জন জামিনের জন্য গেলে আটক হয়েছে। তবে অফিসিয়ালি আমি কোন কাগজপত্র হাতে পাইনি।

ঘটনাপ্রবাহ: কাপ্তাই, চেয়ারম্যান, জেল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eighteen − 17 =

আরও পড়ুন