কাপ্তাই হ্রদে ভাসমান অবস্থায় প্রেমিক যুগলের মরদেহ উদ্ধার

fec-image

রাঙামাটির কাপ্তাই হ্রদ থেকে ভাসমান অবস্থায় প্রান্ত দেওয়ানজি (১৮) এবং তাহমিনা খানম তিন্নি (১৬) নামের প্রেমিক যুগলের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই) দুপুরে জেলা সদরের মগবান ইউনিয়নের বড় গাঙ এলাকা থেকে মরদেহগুলো উদ্ধার করা হয়।

মৃত প্রান্ত দেওয়াজি রাঙামাটি শহরের রিজার্ভবাজারস্থ ১নং পাথর ঘাটা এলাকার ছোট দেওয়ানজির ছেলে। সে রাঙামাটি সরকারি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র। আর তাহমিনা একই শহরের বনরুপা এলাকার বাসিন্দা। মেয়েটি রাঙামাটি লেকার্স পাবলিক স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্রী। তবে মেয়েটির বাবার নাম জানা যায়নি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রান্ত দেওয়ানজি নামের ছেলেটি গত ২৩ জুলাই সকাল সাড়ে সাতটার দিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম তার ফেইসবুক টাইমলাইনে ‘আলবিদা’ স্টাটাস দিয়ে বাড়ি থেকে রাঙামাটি সদরের মগবান ইউনিয়নের বড় গাঙ এলাকার উদ্দেশ্যে বের হয়। এরপর ওই এলাকায় দাড়িয়ে প্রান্ত তার এক বন্ধুকে মুঠোফোনে কল করে। কল করার পরই সে নিখোঁজ হয়। এ ব্যাপারে ছেলেটির বাবা রাঙামাটি কোতয়ালী থানায় একটি নিখোঁজের সাধারণ ডায়েরী করেছে।

রাঙামাটি কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপÍ কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদুল হক রণি ঘটনার সত্যতা নিশ্চত করে জানান, মরদেহগুলো উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু (ইউডি) মামলা দায়ের করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কাপ্তাই, মরদেহ, রাঙামাটি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

sixteen + eighteen =

আরও পড়ুন