কুতুপালং ক্যাম্পে এনজিওর গাড়িতে রোহিঙ্গাদের হামলা

বিশেষ প্রতিনিধি, কক্সবাজার:

উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে রোহিঙ্গারা একটি এনজিওর গাড়িতে হামলা, গাড়ি ভাঙচুর ও এনজিও কর্মীদের মারধর করেছে এমন অভিযোগ পাওয়াগেছে।

জানাগেছে দুই নারী এনজিও কর্মীকে উত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় এনজিও ব্র্যাকের দুটি গাড়িতে হামলা করেছে রোহিঙ্গারা।

রোহিঙ্গারা ব্র্যাকের ২টি গাড়ি থামিয়ে এনজিও কর্মীদের নামিয়ে বেধড়ক পেটায় এবং গাড়িটি ভাংচুর করে ও আগুন দেয়ার চেষ্টা করে। ওই সময় রোহিঙ্গাদের পিটুনিতে ৫ ব্র্যাক কর্মী গুরুতর আহত হয় বলে জানা গেছে।

ব্র্যাকের টিম লিডার তাহমিনা ইয়াসমিন জানিয়েছেন, বিকেলে কুতুপালং ক্যাম্পে কাজ শেষ করে তাদের ২ নারী কর্মী রেজিস্ট্রাট রোহিঙ্গা শিবির দিয়ে ফেরার সময় কিছু রোহিঙ্গা যুবক ঐ দুই নারী কর্মীকে গাড়ি থেকে নামিয়ে উত্যক্ত করছিলো।

ব্র্যাকের অন্য দু’টি গাড়ি ঐ পথ দিয়ে ফিরে আসার সময় ঘটনাটি দেখতে পায়। গাড়ি দুটিতে থাকা এনজিও কর্মীরা রোহিঙ্গাদের কবল থেকে ঐ নারী সহকর্মীকে উদ্ধার করতে গেলে রোহিঙ্গা যুবকরা ২টি গাড়িতে থাকা ব্র্যাক কর্মীদের ওপর হামলা চালায়। রোহিঙ্গারা ব্র্যাক কর্মীদের বেধড়ক লাঠিপেটা করে।

এতে মুস্তাকিন, আতিক, তোহফা, শোয়েব ও জমির নামের ৫ কর্মী আহত হয়। আতদের মধ্যে মুস্তাকিমের অবস্থা গুরুতর। তাকে কক্সবাজারের একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

কুতুপালং রেজিম্ট্রাট ক্যাম্পের ইনচার্জ রেজাউল করিম জানান, ব্র্যাকের দুই নারী কর্মীকে গাড়ি থেকে নামানোর জের ধরে রোহিঙ্গা ও ব্র্যাকের কর্মীদের মাঝে অপ্রিতিকর ঘটনা ঘটেছে। উভয় পক্ষের সাথে আলাপ করে ঘটনা নিস্পত্তির চেষ্টা চলছে বলে জানা তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × four =

আরও পড়ুন