গত ৫ বছর কারও মনে কষ্ট দিইনি: কমল

রামু প্রতিনিধি:

কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধিন মহাজোট মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল বলেছেন, গত ৫ বছর সংসদ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে কারও মনে কষ্ট দিইনি, কারও জমি দখল করিনি, কারও নামে মিথ্যা মামলা করিনি। তবু বিএনপি প্রার্থী তার নেতাকর্মীদের হাতে লাঠি নেয়ার নির্দেশ দিচ্ছেন। ভোটের পরিবেশ বিনষ্ট করার অপচেষ্টা চালাচ্ছেন।

বৃহস্পতিবার(১৩ ডিসেম্বর) বিকালে কক্সবাজার বীর শ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন স্টেডিয়ামে আওয়ামী লীগ ও সকল সহযোগী সংগঠনের বিশাল প্রতিনিধি সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা ওই লাঠি কীভাবে ভাঙতে হয়, তা জানে। বিএনপি প্রার্থী এমপি থাকাকালে রামু-কক্সবাজারে একটি মক্তবও প্রতিষ্ঠা করেননি। আমরা ১৯টি উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছি। বন্যাসহ মানুষের দুঃসময়ে তিনি পাশে ছিলেন না। আমরা সবসময় দুর্গত মানুষের পাশে ছিলাম।

এমপি কমল বলেন, আগামীতে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলে কক্সবাজারকে সিটি কর্পোরেশন, ঈদগাওকে উপজেলা এবং রামুকে পৌরসভায় রুপান্তরের পাশাপাশি কক্সবাজারকে শিক্ষানগরী হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা হবে।

কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা বলেন, ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগকে কেউ পরাজিত করতে পারে না। এ বিজয়ের মাসে বিজয় ছাড়া কোনো কথা নেই।

তিনি বলেন, বিগত পৌর নির্বাচনে যেমন নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধভাবে দায়িত্ব পালন করে বিজয় ছিনিয়ে এনেছিলো, এবারের সংসদ নির্বাচনেও সেভাবে কাজ করে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করা হবে। এজন্য সংগঠনের সকল নেতাকর্মীকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

কক্সবাজার জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী কানিজ ফাতেমা মোস্তাকের সভাপতিত্বে সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান বলেন, সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে নৌকা বিজয় নিশ্চিত করতে নেতাকর্মীদের মাঠে-ময়দানে ঝাপিয়ে পড়তে হবে। বিএনপি নির্বাচনকে সামনে রেখে নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। তাদের ষড়যন্ত্র নস্যাৎ করতে প্রতিটি এলাকায় প্রতিরোধ কমিটি গঠন করতে হবে। এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়ে আবারও ক্ষমতায় আসবে। সম্প্রতি আর্ন্তজাতিক ও দেশীয় বিভিন্ন সংস্থার জরিপে আওয়ামী লীগের সরকার গঠনের সম্ভাবনা নিশ্চিত করা হয়েছে।

সভায় বিশেষ অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান লে. কর্নেল ফোরকান আহমদ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মোহামম্মদ শাহজাহান, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মাহবুবুল হক মুকুল, সাংগঠনিক সম্পাদক নাজনীন সরওয়ার কাবেরী, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা রাশেদুল ইসলাম চৌধুরী, কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোহাম্মদ নজিবুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল কর, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল করিম মাদু, জেলা যুবলীগ সভাপতি সোহেল আহমদ বাহাদুর, সাধারণ সম্পাদক শহীদুল হক সোহেল, জেলা শ্রমিকলীগ সভাপতি জহিরুল ইসলাম সিকদার, জেলা বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগ সভাপতি তৈয়ব উল্লাহ মাতব্বর, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হামিদা তাহের, জেলা কৃষকলীগ সাধারণ সম্পাদক আতিক উদ্দিন চৌধুরী, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি রহিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক কায়সারুল হক জুয়েল, জেলা যুব মহিলা লীগ সভাপতি আয়েশা সিরাজ, সাধারণ সম্পাদক জেলা পরিষদ সদস্য তাহমিনা হক চৌধুরী লুনা, জেলা বাস্তুহারা লীগ সভাপতি হারুন অর রশিদ চৌধুরী, জেলা মৎস্যজীবিলীগ সভাপতি আতিকুল হক চৌধুরী, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ইশতিয়াক আহমদ জয়।

প্রতিনিধি সভা সঞ্চালনায় ছিলেন, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোরশেদ হোসাইন তানিম। শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন জেলা মৎস্যজীবী লীগ নেতা মাওলানা মো. ফোরকান।

সভায় কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগ, পৌর কাউন্সিলর, পৌর আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সহযোগী সংগঠন পৃথক পৃথক মিছিল সহকারে যোগদান করেন। এছাড়া ঝিলংজা ও পিএমখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ মিছিল সহকারে সভায় যোগদান করেন।

এদিকে মহাজোট মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি বৃহষ্পতিবার সকালে রামু উপজেলা গর্জনিয়া ও কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের প্রত্যন্ত এলাকায় গিয়ে গণসংযোগ করেন। এসময় গর্জনিয়া বাজারে নৌকা প্রতীকের দলীয় কার্যালয় উদ্বোধন করেন। সন্ধ্যায় খুরুশকুল ইউনিয়নের বিভিন্ন পথ সভায় যোগদান ও গণসংযোগ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × 1 =

আরও পড়ুন