গুইমারায় আনোয়ার হত্যা মামলার পলাতক আসামি গ্রেফতার

গুইমারা প্রতিনিধি:

জেলার গুইমারা উপজেলার বহুল আলোচিত মোটর সাইকেল চালক আনোয়ার হত্যা মামলার পলাতক আসামি এনামুল হক প্রকাশ সাইফুল ইসলাম জসিম উদ্দিন(৩৫)কে গ্রেফতার করেছে চট্রগ্রাম গোয়েন্দা পুলিশ।

বৃহস্প্রতিবার(১৮ অক্টোবর) দিবাগত রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চট্রগ্রাম গোয়েন্দা পুলিশের উপ পরিদর্শক হুমায়ন কবির মিধার নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে চট্টগ্রামের মিরেশ্বরাই উপজেলার ছোট কমলদাহ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

আটককৃত এনামুল হক প্রকাশ সাইফুল ইসলাম জসিম উদ্দিন চট্টগ্রামের সীতাকুন্ড উপজেলার সৈয়দপুর গ্রামের মৃত মো. আমির হোসেনের ছেলে। সে বিভিন্ন স্থানে ছদ্ম নাম সাইফুল ইসলাম, জসিম ও আবু বক্কর নামে নিজেকে পরিচয় দিতো।

প্রসঙ্গত, নির্মম ভাবে খুন হওয়া আনোয়ারের ফুফাতো ভগ্নিপ্রতি ছিলেন আটক জসিম। গত ২৭ অক্টোবর ২০১৪ সালে কম দামে মোটর সাইকেল কিনে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে নগদ এক লক্ষ টাকাসহ আনোয়ারকে মিরেরশ্বরাই নিয়ে যায় জসিম। এরপর থেকে দুজনেরই মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। দুইদিন পরে ২৯ অক্টোবর বিকাল ৩টায় মিরেরশ্বরাই ২নং বারইয়াডালা ইউনিয়নের বহরপুর গ্রামের নাজিম উদ্দিনের পুকুরে আনোয়ারের লাশ ভেসে উঠলে ফেসবুকে ছবির মাধ্যমে নিহতের পরিবার নিশ্চত হয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আনোয়ারের লাশ নিয়ে আসে। নিহত আনোয়ার পেশায় একজন মোটর সাইকেল চালক ছিলেন।

এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই বাদী হয়ে খাগড়াছড়ি আদালতে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। গুইমারা থানার মামলা নং ০৩/১২-১৪ ধারা ৩০২/৩৪। যা পরে সিআইডি পুলিশের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছিলো।

তদন্তকারী কর্মকর্তা চট্টগ্রাম গোয়েন্দা পুলিশের উপ পরিদর্শক হুমায়ন কবির মিধা এনামুল হককে, আটকের বিষয়ে নিশ্চিত করে জানান, গোযেন্দা সংস্থা কর্তৃক দীর্ঘ চার বছর বিভিন্ন মাধ্যমে খোঁজার পর মিরেশ্বরাই ছোট কমলদাহ এলাকায় এনামুল হক বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করছে এমন তথ্য পেয়ে, কমলদাহ বাজারের একটি লন্ড্রি দোকানের সামনে থেকে তাকে আটক করতে সক্ষম হয়। আটকের পর তাকে খাগড়াছড়ি জেল হাজতে প্রেরন করে ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fourteen − six =

আরও পড়ুন