গুইমারায় নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে মহান বিজয় দিবস পালিত

গুইমারা প্রতিনিধি:

যথাযোগ্য মর্যাদায় ও বর্ণাঢ্য কর্মসূচির মধ্য দিয়ে গুইমারায়  ৪৭তম মহান বিজয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে।

দেশ ও জাতির সর্বাঙ্গীন কল্যাণে সুখী, সমৃদ্ধ, ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্ত বাংলাদেশ বিনির্মাণে সক্রিয় ভূমিকা রেখেই মহান বিজয় দিবস পালন করেছে গুইমারাবাসী।

রবিবার(১৬ ডিসেম্বর) সকালে গুইমারা উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলা প্রশাসন, বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক সংগঠন, এনজিও সংস্থা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও মুক্তিযোদ্ধা সংগঠন সমূহ এতে পৃথক ভাবে শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে আত্মত্যাগী শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এর পরে  গুইমারা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে দেশবাসীর শান্তি কামনা করা হয়। দিনব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে সকাল ৮টায় অনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। পরে কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে উপজেলা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক/শিক্ষিকা, ছাত্র/ছাত্রী, আইন শৃঙ্খলা বাহিনী, আনসার ভিডিপি ও উপজেলা স্কাউট দল অংশ নেয়।

সূর্যোদয়ের সাথে সাথে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে উপজেলার  সকল সরকারি, বেসরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসমূহে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়।

এ সময় মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস তুলে ধরে গুইমারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পঙ্কজ বলেন, যাঁদের তাজা রক্তের বিনিময়ে আমরা স্বাধীন সার্বভৌমত্ব দেশ পেয়েছি, জাতি তাদের কোনো দিনও ভুলবে না। তাদের রক্তের ঋণ কোনো দিন সোধ হবে না।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন প্রশাসনিক কর্মকর্তার পাশাপাশি জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিবিদ, সুশীল সমাজ, সাংবাদিক, উপজেলার বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসার শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকগণ উপস্থিত ছিলেন। প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে মহান ও গৌরবোজ্জ্বল মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ক্ষুধা, দারিদ্র, দুর্নীতি ও সন্ত্রাসমুক্ত সুখী-সম্মৃদ্ধ ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

এদিকে দিবসটি উপলক্ষে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তি যোদ্ধাদের সংবর্ধনা দিয়েছে গুইমারা উপজেলা প্রশাসন। দুপুরে উপজেলা সম্মেলন কক্ষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে সম্মানি ভাতা তুলে দেন।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মৎস কর্মকর্তা সুদৃষ্টি চাকমা, গুইমারা থানার অফিসার ইনচার্জ বিদ্যুৎ কুমার বড়–য়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. জাহাঙ্গির আলম, ইউপি চেয়ারম্যান মেমং মারমা প্রমুখ ।

কর্মসূচির মধ্যে দিবসের প্রথম প্রহরে শহীদদের স্বরণে উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণ, জাতীয় পতাকা উত্তোলন, মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা, খেলাধুলা, কুজকাওয়াজ বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে স্ব স্বা নিয়মে প্রার্থনা, বিজয়ের অর্জন ও মুক্তিযোদ্ধা সংগ্রাম চেতনা, দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয় নিয়ে আলোচনা সভা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণ।

এছাড়াও উপজেলা নির্বাহী অফিসার পঙ্কজ বড়–য়ার সভাপতিত্বে, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান মেমং মারমা , উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ঝর্না ত্রিপুরাআওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম,যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পলাশ, স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্দ ও উপজেলা বিভিন্ন সরকারি বে-সরকারি দপ্তরের প্রধান, রাজনৈতিক দলের কর্মী, জনপ্রতিনিধি ,আইন শৃঙ্খলায় নিয়োজিত বাহিনী, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও শত শত জনতা স্বতস্ফূর্ত অংশগ্রহণ করেন ।

সবশেষে সন্ধা ৭টায় গুইমারা উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে উপজেলা প্রসাশনের উদ্যোগে এলাকার প্রবীণ/নবীন শিল্পিদের নিয়ে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে মহান বিজয় দিবস ২০১৮উদযাপন সমাপ্তি ঘটে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five − 3 =

আরও পড়ুন