জঙ্গলে ধ্যান করতে গিয়ে চিতাবাঘের কবলে বৌদ্ধ সন্নাসী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

জঙ্গলে ধ্যানরত অবস্থায় জিতাবাঘের হামলায় প্রাণ হারালেন এক বৌদ্ধ সন্নাসী। মঙ্গলবার (১১ ডিসেম্বর) এমন ঘটনাই ঘটেছে ভারতের মহারাষ্ট্রের চন্দ্রপুর জেলার রামদেগি জঙ্গলে।

মঙ্গলবার সকালে ৯.৩০ থেকে ১০টার মধ্যে এই ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে ব্যাঘ্র সংরক্ষণ কর্তৃপক্ষ।

জানাগেছে,সন্নাসীর দেহের কিছু অংশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। চিতাবাঘের হামলার পর জঙ্গলের ওই এলাকা আপাতত কড়া পাহারায় রেখেছেন বনকর্মীরা।

স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, জঙ্গলের মধ্যে বহু প্রাচীন একটি ঐতিহাসিক বৌদ্ধ মন্দির  রয়েছে । রাহুল ওয়ালকের নামে ওই সন্ন্যাসী গত এক মাস ধরে মন্দির থেকে দূরে গিয়ে গভীর জঙ্গলের একটি গাছের নীচে বসে ধ্যান করতেন। সেই মন্দির থেকে গত এক মাস ধরে মাঝেমধ্যে ওয়ালকের কাছে খাবার পাঠানো হত।

ধারাবাহিকভাবে মঙ্গলবারও তাঁর কাছে খাবার নিয়ে যান আরেক ভিক্ষু। সেখানে গিয়ে তিনি দেখেন বাঘের কবলে পড়েছে রাহুল।এসময় তিনি অন্যদের ডেকে ঘটনাস্থলে গেলেও রাহুলকে বাঁচাতে পারেননি।

এই খবরের সত্যতা স্বীকার করেছেন মহারাষ্ট্রের তাদোবা আন্ধারি ব্যাঘ্র সংরক্ষণ প্রকল্পের ডেপুটি ডিরেক্টর গজেন্দ্র নারওয়ানে।

নাগপুর থেকে ১৫০ কিলোমিটার দূরে ওই জঙ্গলে চিতাবাঘের আনাগোনা বেড়েছে বলে দিন কয়েক আগেই সতর্কবার্তা জারি করেছিল প্রশাসন। কিন্তু প্রশাসনের কথা শুনে অন্যত্র যাওয়ার আগেই চিতাবাঘ রাহুল ওয়ালকেকে নিজের শিকার বানিয়ে নেয়।

নারওয়ানে বলেন, ‘সংরক্ষিত এ বনাঞ্চলে ৮৮টি বাঘ রয়েছে। আমি সবাইকে বলেছি বনের ভেতরে যেন না ঢোকে।’ তথ্যসূত্র:বিবিসি, টাইমস অব ইন্ডিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

13 − six =

আরও পড়ুন