টেকনাফে অজ্ঞাত নারীর লাশ উদ্ধার

নিউজ ডেস্ক:

টেকনাফের একটি পাহাড় থেকে অজ্ঞাত পরিচয় নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। উদ্ধার লাশটি গলে বিকৃত হয়ে গেছে। ওই নারীর বয়স ২৫ বছর হতে পারে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) বিকেলের দিকে বাহারছড়া ইউনিয়নের দক্ষিণ শীলখালী চৌকিদারপাড়া সংলগ্ন গহীন পাহাড় থেকে অজ্ঞাত এ নারীর লাশটি উদ্ধার করা হয়েছে। এ তথ্যটি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক ওসি (তদন্ত) এবিএমএস দোহা।

তিনি জানিয়েছেন, গত সোমবার (২৯ এপ্রিল) টেকনাফের বাহারছড়ার দক্ষিণ শীলখালী চৌকিদারপাড়া সংলগ্ন পাহাড়ে গরু চরাতে গিয়ে একই এলাকার সফর মুল্লুকের ছেলে মো. কাশেম (৫৫) ও আব্দুল করিমের ছেলে মো. সলিম উল্লাহ (১২) নানা-নাতি দুজনকে অস্ত্রের মুখে অপহরণ করা হয়। ওইদিন রাতে ফোন করে পরিবারেরর কাছে। বলা হয়, মুক্তিপণ দিলে তাদের পরের দিন ছেড়ে দেওয়া হবে। তবে গতকাল দুপুর পর্যন্ত তাদের ছেড়ে না দেওয়ায় বিষয়টি পুলিশে জানানো হয়।

এরপর ওই তথ্যের ভিত্তিতে বাহারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির পরির্দশক আনোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুজিত চন্দ্র দে সহ পুলিশের একটি বিশেষ দল ওই পাহাড়ে অভিযানে যায়। সেখানে মাটিতে অর্ধেক পুঁতে রাখা অবস্থায় ওই নারীর গলিত লাশ উদ্ধার করা হয়। তবে মৃতদেহের কোনো পরিচয় সনাক্ত করা হয়নি এবং অপহৃত নানা-নাতিরও কোনো খোঁজখবর পাওয়া যায়নি।

অপহৃত মো. সলিম উল্লাহর বাবা আব্দুল করিম বলেন, প্রতিনিয়ত ওই পাহাড়ে গরু চরাতে যায় স্থানীয় বাসিন্দারা। তবে পাহাড়ে কিছু অস্ত্র ও মুখোশধারীর অবস্থান করছে কয়েকদিন ধরে। তারা এলাকার আরও কয়েকজন রাখালকে মারধর করেছে। গত সোমবার আমার শ্বশুর ও ছেলে গরু চরাতে গেলে তাদের অপহরণ করে নিয়ে যায়। তাদের মঙ্গলবার ছেড়ে দেওয়ার কথা ছিল। দুপুর পর্যন্ত ছেড়ে না দেওয়ায় বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করা হয়েছে।

বাহারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির পরির্দশক ও লাশ উদ্ধারকারী কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন বলেন, উদ্ধার লাশটির সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। পরিচয় পাওয়া না গেলে আঞ্জুমান মফিদুল ইসলামকে দিয়ে লাশটি দাফনের ব্যবস্থা করা হবে। এ ঘটনার মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

ঘটনাপ্রবাহ: টেকনাফে লাশ উদ্ধার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × three =

আরও পড়ুন