টেকনাফে গোলাগুলিতে এক নারী মাদক কারবারি নিহত

fec-image

টেকনাফে মাদক কারবারি দুই দলের গোলাগুলিতে এক নারী মাদক কারবারি নিহত হয়েছেন। নিহত নারী হলেন টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুড়া এলাকার ছমি উদ্দীনের স্ত্রী হামিদা (৩২)। এছাড়া ঘটনাস্থল তল্লাশি করে ২ টি এলজি, ৮ রাউন্ড তাজা কার্তুজ, ১২ রাউন্ড খোসা, ৫০০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

বুধবার (১৭ জুলাই) ভোর রাত ৪ টার দিকে টেকনাফ মডেল থানাধীন হ্নীলা ইউপিস্থ জাদিমুড়া বাজারের পূর্ব দিকে নাফ নদী সংলগ্ন খালি জায়গায় এই ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুড়া বাজারের পূর্ব দিকে নাফ নদী সংলগ্ন খালি জায়গায় ইয়াবা বন্টনকে কেন্দ্র করে দুই দল মাদক কারবারিদের মধ্যে ব্যাপক গোলাগুলি হয়। ওই সংবাদ পেয়ে দ্রুত থানা থেকে অতিরিক্ত অফিসার ফোর্সসহ পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে ব্যাপক গোলাগুলির শব্দ শুনতে পাই। পুলিশ পরিস্থিতি শান্ত করতে ১৫ রাউন্ড পাল্টা গুলি করে। এক পর্যায়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ঘটনাস্থল তল্লাশি করে এক মহিলাকে গুলিবিদ্ধ গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার  করে।

এ সময় উপস্থিত স্থানীয় লোকজন, দফাদার ও গ্রাম পুলিশের সনাক্ত মতে তার নাম হামিদা (৩২) বলে জানা যায়। এছাড়া ঘটনাস্থল তল্লাশি কালে আসামীদের ফেলে যাওয়া ছড়ানো ছিটানো অবস্থায় ২ টি এলজি, ৮ রাউন্ড তাজা কার্তুজ, ১২ রাউন্ড খোসা, ৫০০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। পরে গুলিবিদ্ধ হামিদাকে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করেন।তার বিরুদ্ধে টেকনাফ থানায় মাদকের মামলা রয়েছে বলেও জানা গেছে।

টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ প্রদীপ কুমার দাশ সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।এ দিকে ১৭ জুলাই দিবাগত রাত সাড়ে ১২ টার দিকে বিজিবির সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে চাঁদপুর ও যশোরের দু মাদক কারবারি নিহত হন। তাদের কাছ থেকে ৫ হাজার ইয়াবা ও আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করে বিজিব।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: টেকনাফ, মাদক কারবারি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

six − 1 =

আরও পড়ুন