“লাং কুমার ত্রিপুরা নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে স্ত্রী সন্তানেরা বিভিন্ন স্থানে খোঁজ নিয়েও সন্ধান পাননি।”

দীঘিনালায় ইউপিডিএফ (গণতন্ত্র)‘র কর্মী নিখোঁজ, ২০ দিনেও সন্ধান মিলেনি

লাং কুমার ত্রিপুরার ছেলে মেয়ে

 

দীঘিনালায় লাং কুমার ত্রিপুরা নামে একজন নিখোঁজ রয়েছে। সে উপজেলার যৌথখামার এলাকার মৃত পদ্ম কুমার ত্রিপুরার্ ছেলে। গত ২১ এপ্রিল (রবিবার) উপজেলার ইয়ারেংছড়ি এলাকা থেকে সে নিখোঁজ হয়। ঘটনার পর থেকে তার স্ত্রী সন্তানেরা বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ নিয়েও সন্ধান পাননি।

জানাযায়, লাং কুমার ত্রিপুরা গত ২১ এপ্রিল উপজেলার ইয়ারেংছড়ি এলাকায় ইউপিডিএফ গণতন্ত্র সাংগঠনিক দায়িত্ব পালন করতে যান। পরে সেখান থেকেই নিখোঁজ হন। আর বাড়ি ফিরে আসেনি। লাং কুমার ত্রিপুরার্ দুই ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

বড় ছেলে পরিষদ ত্রিপুরা (২০) দীঘিনালা সরকারি ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণিতে এবং মেয়ে পলিনা ত্রিপুরা (১৫) খাগড়াছড়ি টেক্সটাইল ভোকেশনাল ইন্সটিটিউট এ পড়াশোনা করছেন।

এদিকে লাং কুমার ত্রিপুরা নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে স্ত্রী সন্তানেরা বিভিন্ন স্থানে খোঁজ নিয়েও সন্ধান পাননি।

অন্যদিকে লাং কুমার ত্রিপুরার স্ত্রী নদী বালা ত্রিপুরা স্বামীর সন্ধানে পুজা দিতে যাওয়ায় তাঁর সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

এব্যাপারে লাং কুমার ত্রিপুরার ছেলে পরিষদ ত্রিপুরা এবং মেয়ে পলিনা ত্রিপুরা জানান, গত ২১ এপ্রিল (রবিবার) থেকে খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না আমার বাবার। সংগঠনের নেতাদের সাথে কথা বলেও কোন খোঁজ পাইনি। আমরা আমাদের পিতার জীবিত বা মৃত সন্ধান চাই।

ইউপিডিএফ গণতন্ত্র এর দীঘিনালা উপজেলার পরিচালক প্রনয় বিকাশ চাকমা বলেন, নিখোঁজ লাং কুমার ত্রিপুরার সন্ধানে আমরাও বিভিন্ন স্থানে খোঁজ নিচ্ছি।

দীঘিনালা থানার অফিসার ইনচার্জ উত্তম চন্দ্র দেব জানান, এব্যাপারে পরিবারের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ করা হয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ঘটনাপ্রবাহ: ইউপিডিএফ, কর্মী, গণতন্ত্র

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five × one =

আরও পড়ুন