নাইক্ষ্যংছড়িতে তামাকের বিকল্প চাষে ঝুঁকছে কৃষকেরা

বাইশারী প্রতিনিধি:

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ৪ ইউনিয়ন তামাক চাষের জন্য বিগত সময়ে বিখ্যাত ছিল। তবে বর্তমানে উপজেলা সদর, বাইশারী, দো-ছড়ি, সোনাইছড়িসহ এসব এলাকার কৃষকেরা তামাকের বিকল্প চাষে আশার আলো দেখছেন।

সোনাইছড়ি ইউনিয়নের হেডম্যান পাড়ার, কৃষক- উছাইমং মার্মার সাথে কথা বলে জানা যায় , বিগত বছর গুলোতে তামাক চাষ করে- বিঘা প্রতি ১৭ হাজার টাকা পেয়েছিল কিন্তু বর্তমানে একই জমিতে পেঁপে চাষ করে বিঘা প্রতি ৪০ হাজার টাকা পর্যন্ত লাভবান হওয়ার আশা করছেন এই উপজাতি কৃষক।

সোনাইছড়িতে দায়িত্বরত উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা পেঁপে চাষীদের সার্বিক প্রশিক্ষণ ও বিভিন্ন পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন, ফলে তামাক চাষের পরিবর্তে দিন দিন পেঁপে চাষের প্রতি কৃষকদের আগ্রহ বাড়ছে। অপর দিকে বাইশারি ইউনিয়নের দায়িত্ব প্রাপ্ত উপসহকারি কৃষি কর্মকর্তা রফিকুল আলম বলেন,  আমার ব্লকের কৃষকেরা নানা ধরনের সবজি চাষ ভুট্টা চাষ করে লাভজনক হওয়ায় এলাকার কৃষকেরা সেদিকে ঝুঁকছে।

উপজাতি কৃষক উছাইমং মার্মা জানান, তাঁর কাছ থেকে দেখে একই এলাকার বাসিন্দা থোয়াই হ্লারী মার্মা, ক্যওয়াং মার্মা, হ্লাথোয়াই মার্মা ও চাইহ্লাথোয়াই মার্মা পেঁপে চাষ করা শুরু করেছেন। এছাড়াও হেডম্যান পাড়ায় বিগত দিনের প্রচুর পরিমাণ তামাক চাষ হলেও, বর্তমানে উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তারদের সহযোগিতায় তামাকের পরিবর্তে পেঁপে, লেবু, মাল্টা, কমলা, আম, পেয়ারা, জলপাই-সহ বিভিন্ন সবজি- উৎপাদন করে কৃষকেরা প্রচুর পরিমাণ লাভবান হচ্ছে। তাই আগামীতে অধিকাংশ কৃষক শীত মৌসুমে বিভিন্ন প্রকার সবজি আবাদ করবেন বলে জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

14 + thirteen =

আরও পড়ুন