নাইক্ষ্যংছড়ি মাঠ হবে মিনি স্টেডিয়াম, পরিকল্পিত উন্নয়ন চান খেলোয়াড়রা

নিজস্ব প্রতিনিধি, বান্দরবান:

পার্বত্যমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতির আরও একটি বাস্তবায়ন হতে যাচ্ছে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে। এখানে খেলাধুলার উন্নয়নের জন্য ৪০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে গড়ে তোলা হবে ৯স্তরবিশিষ্ট ৫০ ফুট গ্যালারী সম্বলিত মিনি স্টেডিয়াম। এই স্টেডিয়াম দৃশ্যমান হলে সীমান্তবর্তী পাহাড়ি উপজেলার ক্রীড়াঙ্গনে নতুন যুগের সূচনা হবে। ক্রীড়া প্রিয় মানুষের মাঝে বাড়বে উম্মাদনা।

তবে এই উন্নয়ন যেন পরিকল্পিত হয় সেই দাবি তুলেছেন স্থানীয় খেলোয়াড়রা। তাদের মতে পরিকল্পিত উন্নয়ন না হলে নাইক্ষ্যংছড়ির একমাত্র বিশালাকার মাঠের পরিসর কমে যাবে। এ কারণে মাঠের ক্ষতি হওয়া ছাড়াও খেলাধুলায় বিঘ্ন ঘটবে।

ঢাকা সাইফ স্পোটিং ক্লাবের খেলোয়াড় ও নাইক্ষ্যংছড়ি হাই স্কুল মাঠে বেড়ে উঠা উসাই মং মারমা ছোট পার্বত্যনিউজকে জানান- পার্বত্যমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি দ্রুত বাস্তবায়ন হতে যাচ্ছে জেনে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। এই জন্য সকল খেলোয়াড়দের পক্ষ থেকে মন্ত্রী মহোদয়কে কৃতজ্ঞতা জানাই। তার মতে- এই মাঠের আয়তন মুটামুটি বড়। স্থানীয় যেকোন টুর্নামেন্ট আয়োজনের জন্য এই মাঠ উপযোগী। কিন্তু মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণের জন্য যে পরিকল্পনার কথা বলা হচ্ছে তাতে গ্যালারির ৯ স্তরের সিঁড়িগুলো মাঠের ভিতরে চলে আসবে। এতে করে কমে যাবে মাঠের পরিসর। তাই প্রয়োজনে পুনরায় সম্ভাব্যতা যাচাই করে গ্যালারী নির্মাণের জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এই তরুণ খেলোয়াড়।

উন্নয়ন বোর্ডের সহকারী প্রকৌশলী (সিভিল) ত্রিদিব কুমার ত্রিপুরা জানান, অভিযোগের বিষয়ে কয়েকজন খেলোয়াড় অভিযোগ তুলেছেন। স্কুল কর্তৃপক্ষ জায়গা দিলে অভিযোগ সমাধান হবে। উন্নয়ন কাজের সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার অসিম বড়ুয়াও আপত্তির বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

এই প্রসঙ্গে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের সহকারী প্রকৌশলী আবু বিন মোহাম্মদ ইয়াছির আরাফাত জানান, অভিযোগের বিষয়ে কেউ আমাদের এখনো বলেননি। আপত্তি তুললে উন্নয়ন কাজ এগিয়ে নেওয়া সম্ভব নয়। তবে কর্তৃপক্ষ জায়গা দিলে আমাদের কাজ করতে সমস্যা নেই।

ঘটনাপ্রবাহ: নাইক্ষ্যংছড়ি, মিনি স্টেডিয়াম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 + 6 =

আরও পড়ুন