“কাকারা ইউনিয়নের সীমান্ত এলাকা হাজিয়ানস্থ ঘুনিয়া পয়েন্ট থেকে স্থানীয় ডুবুরিরা তার লাশ উদ্ধার করে”

নিখোঁজের ১৮ঘন্টা পর মাদ্রাসা ছাত্রের লাশ উদ্ধার

fec-image

কক্সবাজারের চকরিয়ায় মাতামুহুরী নদীতে গোসল করতে নেমে চোরাবালিতে তলিয়ে গিয়ে নিঁখোজ হওয়া আবদুল মজিদ (১৩) নামের শিক্ষার্থীর লাশ ১৮ ঘন্টার পর উদ্ধার করা হয়েছে।

শনিবার(১৫ জুন) সকাল ৭টায় উপজেলার কাকারা ইউনিয়নের সীমান্ত এলাকা হাজিয়ানস্থ ঘুনিয়া পয়েন্ট থেকে স্থানীয় ডুবুরিরা তার লাশ উদ্ধার করে।

নদীর চোরাবালিতে আটকে নিখোঁজ শিক্ষার্থী আবদুল মজিদ চকরিয়া উপজেলার কাকারা ইউনিয়নের ৩নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ হাজিয়ান আমতলী এলাকার দুদুমিয়া’র ছেলে। সে ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নস্থ হাজিয়ান মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণীতে পড়ুয়া শিক্ষার্থী।

স্থানীয়রা জানান, দুপুরের দিকে ফুটবল খেলে মাতামুহুরী নদীতে গোসল করতে নেমে শিক্ষার্থী মজিদ চোরাবালিতে আটকে পড়ে নদীগর্ভে তলিয়ে যায়। এ সময় তাকে অনেকে উদ্ধার করতে নামলেও কোনো কাজ হয়নি। ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল এসে দীর্ঘক্ষণ তল্লাশি চালানোর পরও তার খোঁজ মেলেনি। মূলত মাতামুহুরীর নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের কারণে সৃষ্ট চোরাবালিতে আটকে পড়ে তলিয়ে যায় ওই শিক্ষার্থী।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাবিবুর রহমান জানান, শুক্রবার দুপুরে শিক্ষার্থী মজিদসহ তার কয়েকজন বন্ধু ফুটবল খেলে মাতামুহুরী নদীতে গোসল করতে নামলে মজিদ সাঁতার না জানায় চোরাবালিতে পানির নিচে তলিয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিসের দমকল বাহিনী, স্থানীয় লোকজন ও চট্টগ্রাম থেকে আসা ডুবুরিরা চেষ্টা করেও রাত দুইটা পর্যন্ত তার লাশ উদ্ধার করতে পারেনি। শনিবার সকাল ৭টার দিকে স্থানীয় ডুবুরিরা তার মৃতদেহটি উদ্ধার করেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চকরিয়া, লাশ উদ্ধার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

18 − 2 =

আরও পড়ুন