বাংলাদেশ সীমান্তে বেষ্টনী নির্মাণ করছে বার্মা

 

পার্বত্যনিউজ ডেস্ক:

বাংলাদেশ সীমান্তে বেষ্টনী দেওয়ার জন্য ১২৫ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করেছে বার্মার পার্লামেন্ট। বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) এই বাজেট পাশ হয় বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট।

বার্মার আইনপ্রণেতা মিও যাও অং শুক্রবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) বলেন, স্বরাষ্ট্র, প্রতিরক্ষা ও সীমান্ত বিষয়ক মন্ত্রণালয় যৌথভাবে বাজেটটি প্রস্তাব করে।

বার্মার স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জেনারেল অং সোয়ে জানান, রাখাইন রাজ্যে ২৯৩ কিলোমিটার সীমান্তের মধ্যে ইতোমধ্যে ২০২ কিলোমিটার সীমান্তে বেষ্টনী নির্মাণ করা হয়েছে।

এই বেষ্টনী নির্মানের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে রোহিঙ্গাদেরকে বাংলাদেশে প্রবেশে কড়াকড়ি আরোপ করা। বর্তমানে যে হারে বাংলাদেশে রোহিঙ্গা প্রবেশ বেঁড়ে গেছে এতে করে বার্মার আসল মুখোশ বিশ্বের কাছে পৌঁছে যাচ্ছে। সীমান্তে যদি বেষ্টনী নির্মাণ করা যায় তাহলে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে প্রবেশ সহজ হবে না। এর ফলে তাদেরকে যতই অত্যাচার, নির্যাতন করা হোক না কেন তা শুধুই বার্মার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে এবং বিশ্বের কোন দেশই এর খবর টের ও পাবে না।

আন্তর্জাতিক চাপের মুখে বার্মা রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরত নিতে সম্মত হলেও তা কার্যকরের বিষয়টি এখনও প্রক্রিয়াধীন। শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এই তালিকা থেকে সাড়ে ছয় হাজার রোহিঙ্গাকে ফিরিয়ে নিতে ২৯ ফেব্রুয়ারি প্রাথমিক পদক্ষেপ নেবে বার্মা। বিপরীতে বার্মা সরকারের মন্ত্রী ড. উইন মিয়াত জানান, সরকার খতিয়ে দেখবে যে তারা আদৌ আরাকানের অধিবাসী কিনা। এ থেকে বুঝা যায় বার্মা সরকার কোনভাবেই স্বেচ্ছায় রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে সম্মত হয়নি। বৈশ্বিক চাপের মুখে ফেরত নিতে হচ্ছে। তাই এখনও বার্মা সরকার আগ্রাসী মনোভাব দেখাচ্ছে।

গত আগষ্টে বার্মায় বর্বর সেনাবাহিনী এবং মগ সন্ত্রাসীদের সম্মিলিত নৃশংস হত্যাকাণ্ডের ফলে প্রায় সাত লক্ষ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে যায়।

সূত্র: আরাকান টিভি

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

18 − eight =

আরও পড়ুন