গ্যাস ব্যবহার না করে বাতাসের সাথে উড়িয়ে দিচ্ছে রোহিঙ্গারা

fec-image

কক্সবাজারের উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে স্বইচ্ছায় গ্যাসের অপচয় করছে বসবাসরত এই রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী। এনজিওদের কাছ থেকে প্রতিমাস শেষে পাওয়া গ্যাস সিলিন্ডার থেকে উড়িয়ে দিচ্ছে সহস্রাধিক গ্যাস।

রোহিঙ্গাদের এই উদ্ভট কর্মকাণ্ড স্থানীয়দের অবাক করেছে। কেন তারা অবাধে এই গ্যাস উড়িয়ে দিচ্ছেন জনমনে প্রশ্ন তৈরি হয়েছে। এদিকে বাংলাদেশে পূর্বের তুলনায় ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরের বাজেটে গ্যাসের চওড়া দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। উক্ত বাজেট নিয়ে সাধারণ জনগণ মানববন্ধন ও ক্ষোভও প্রকাশ করেছে। অথচ বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা এখানেই বসবাস করে প্রয়োজনের বাইরে গ্যাস খরচ করেই চলেছে।

স্থানীয় জসিম উদ্দিন বলেন,” রোহিঙ্গারা প্রতি মাসে অবাধে গ্যাস খরচ করছে। অনেক রোহিঙ্গা দেখেছি গ্যাসের সিলিন্ডার থেকে গ্যাস উড়িয়ে দিচ্ছে। আবার অনেকে রোহিঙ্গারা গ্যাস নিজেরা ব্যবহার না করে বাইরে বিক্রি করে দেয়।”

কেন তারা গ্যাস উড়িয়ে দেন এমন প্রশ্নের জবাবে স্থানীয় ওসমান বলেন,”রোহিঙ্গারা বেশিরভাগ লোকই দেখেছি তারা গ্যাসের অপব্যবহার করে। রোহিঙ্গাদের এক মাসের জন্য দেওয়া সিলিন্ডার ভর্তি গ্যাস একমাসে শেষে করতে পারেনা। তাই তাঁরা পরবর্তী গ্যাস প্রদান করার মুহুর্তের কয়েকদিন আগেই সিলিন্ডার খালি করে রাখে আবার নতুন করে গ্যাস পাওয়ার জন্য। যদি পরবর্তী গ্যাস প্রদানের আগ মুহুর্তে গ্যাস শেষ না হয় তখন কর্তৃপক্ষ তাদের এর পরবর্তী মাস থেকে গ্যাস কমিয়ে দেয়।”

তিনি আরো বলেন,”এমন লোকও আছে যারা গ্যাস ও চুলার ব্যবহারের নিয়মও জানেনা। এরকম ক্যাম্পে অনেকবার অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাও ঘটেছে। আবার গ্যাস কেউ কেউ ব্যবহার না করে রোহিঙ্গা বাজারে এনে বিক্রি করে দেয়। কতিপয় রোহিঙ্গা এটাকে অভ্যাস অথবা ব্যবসায় পরিণত করেছে। যাকে বিক্রি তার সাথে প্রতি মাসে গ্যাসের সিলিন্ডার বদল করে নেয়।”

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ক্যাম্প ১১ মাঝি নুরুল বশর বিষয়টি স্বীকার করে বলেন,”গ্যাস-চুলা ব্যবহারে যারা মুটামুটি সচেতন ও দক্ষ তারা এগুলোর যথাযথ ব্যবহার করছে। যারা অনভিজ্ঞ তারাই উপরোল্লিখিত কাণ্ডসমূহ ঘটাচ্ছেন।”

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen − 14 =

আরও পড়ুন