“জনসংহতি সমিতির সাথে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে আরাকান লিবারেশন আর্মি বা মগ বাহিনীর মধ্যেকার চলমান দ্বন্দের জের ধরে ধারাবাহিক প্রতিশোধ নিতে এসব হামলার ঘটনা ঘটেছে।”

বান্দরবানে মগ বাহিনীর নতুন হুমকিতে ১২পাড়াবাসী

মগ বাহিনী

 

বান্দরবানে এবার ১২জন উপজাতীয় পাড়াবাসীকে হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। তবে দুষ্কৃতিকারীদের হুমকির ধরণ ছিল ভিন্ন।

গত সোমবার বান্দরবান জেলা শহরের প্রুমংউ পাড়ার লোকজনের বাড়ির সামনে হত্যার হুমকি লিখে যায় দুষ্কৃতিকারীরা। এই হুমকি পাওয়ার পর থেকে পাড়ার লোকজনের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। বিশেষ করে আতঙ্কে রয়েছে পরিবারের পুরুষরা।

এলাকাবাসীর অভিযোগে জানা যায়, সম্প্রতি সময়ে বান্দরবানে আলোচনায় আসা মগ পার্টি নামে একটি সন্ত্রাসী দল এই হুমকি দিয়েছে। এর আগে রাজবিলা ইউনিয়নের তাইংখালীতে একজন ও ৯ কুহালং ইউনিয়নের বাকিছড়া রাবার বাগানে একজনকে হত্যা করেছে ওই সন্ত্রাসী বাহিনী।

এ ছাড়া তাইংখালী থেকে একজনকে অপহরণ করা হয়। অপহৃত এবং নিহত সবাই জেএসএসের নেতা-কর্মী ও সমর্থক ছিলেন। এই ঘটনার পর থেকে আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটচ্ছে আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল জনসংহতি সমিতির সহযোগী সংগঠন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের নেতা কর্মীরাও।

জানা গেছে, জনসংহতি সমিতির সাথে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে মগ বাহিনীর মধ্যেকার চলমান দ্বন্দের জের ধরে ধারাবাহিক প্রতিশোধ নিতে এসব হামলার ঘটনা ঘটেছে। মগ বাহিনীটিকে রাজনৈতিক একটি প্রভাবশালী মহল রাঙ্গামাটি থেকে উড়িয়ে আনা হয়েছে বলে দাবি করছেন জেএসএস নেতৃবৃন্দ।

এই প্রসঙ্গে বান্দরবান জেলা পুলিশ সুপার জাকির হোসেন মজুমদার জানান- পাহাড়ে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে একের পর এক খুন হচ্ছে। মঙ্গলবারের ঘটনা তার প্রতিফলন। তবে কারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে তা এখনো জানা যায়নি। তবে বিচ্ছিন্নতাবাদী গ্রুপের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান পুলিশের জেলার র্শীষ এই কর্মকর্তা।

ঘটনাপ্রবাহ: ১২পাড়াবাসী, বান্দরবানে, মগ বাহিনীর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × 2 =

আরও পড়ুন