বান্দরবানে খোলা বাজারে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান

fec-image

বান্দরবানে রবিবার রোহিঙ্গাদের ত্রাণের বিভিন্ন ধরণের নিত্য প্রয়োজণীয় সামগ্রি বিক্রি বন্ধে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নোমান হোসেন প্রিন্সের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়েছে।

এ সময় ভ্রাম্যমান আদালত খোলা বাজারে বিক্রির জন্য রাখা শরণাথী ক্যাম্পের সাবান, পেস্ট, পুষ্টি পাউডার, ক্যালসিয়াম, ঔষুধসহ মেয়াদোত্তীর্ণ বিভিন্ন ধরণের পণ্য সামগ্রী জব্দ করে জনসম্মুখে ধ্বংস করেছেন। ইউএনও নোমান হোসেন প্রিন্স বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সরকারী-বেসরকারী সংস্থার দেয়া ত্রাণের সামগ্রি প্রকাশ্যে খোলা বাজারে বিক্রির খবরে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান পরিচালনা করা হয়। জনসাধারণের স্বার্থে এই ধরণের অভিযান আগামীতেও চলমান থাকবে। খোলা বাজার থেকে জব্দ করা সামগ্রি ধংস করা হয়েছে।

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানায়, সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় মিয়ানমার থেকে পালিয়ে এসে কক্সবাজারের বিভিন্ন ক্যাম্পে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের সাহার্যার্থে বিভিন্ন মহল থেকে প্রতিদিন ত্রাণ সহায়তা দেয়া হচ্ছে। রোহিঙ্গা পরিবারের একাধিক সদস্য ত্রাণকার্ড সংগ্রহ করে নিয়মিত পাচ্ছে সরকারী-বেসরকারি ত্রাণ সামগ্রি। কিন্তু পরিবারের প্রয়োজণীয় ত্রাণ সামগ্রি রেখে অতিরিক্ত ত্রাণ খোলা বাজারের ব্যবসায়ীদের বিক্রি করে দিচ্ছে রোহিঙ্গারা। রোহিঙ্গাদের কাছ থেকে কেনা ত্রাণের সামগ্রি বান্দরবান বাজার’সহ আশপাশের হাট-বাজারগুলো বিক্রয় করছে ভ্রাম্যমান দোকানদাররা।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: বান্দরবান, ভ্রাম্যমান আদালত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five × two =

আরও পড়ুন