বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার পরিসংখ্যান ও রেকর্ড

fec-image

আগামী ৩০ মে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলসে অনুষ্ঠিতব্য আইসিসি বিশ্বকাপ। এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে পাঁচ ওয়ানডে সিরিজে নিজেদের সঠিক কম্বিনেশন ঠিক করতে চেয়েছিল শ্রীলঙ্কা। সেখানে ভাল কিছু করতে পারেনি দলটি। তবে বিশ্বকাপে দলটির কিছু পরিসংখ্যানের প্রতি দৃষ্টি দেয়া যাক।

বিশ্বকাপে কেমন করেছে শ্রীলঙ্কা:

একটি ম্যাচেও পরাজিত না হয়ে ১৯৯৬ বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে শ্রীলঙ্কা। এছাড়া ২০০৭ এবং ২০১১ আসরেও তারা হয়েছে রানার্স-আপ। তবে দ্বীপ এ রাষ্ট্রটি ছয় বার ১৯৭৫, ১৯৭৯, ১৯৮৩, ১৯৮৭, ১৯৯২ এবং ১৯৯৯ বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়েছে। ২০০৩ আসরে সেমিফাইনাল খেলা দলটি ২০১৫ বিশ্বকাপে বিদায় নেয় কোয়ার্টার ফাইনাল খেলে।

বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার সর্বোচ্চ ও নর্বনিম্ন দলীয় স্কোর:

শিরোপা জয় করা ১৯৯৬ বিশ্বকাপেই দলটির রয়েছে সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহের রেকর্ড। এ আসরে নিজ মাঠ ক্যান্ডিতে কেনিয়ার বিপক্ষে ৫ উইকেটে ৩৯৮ রান ছিল বিশ্ব আসরে শ্রীলঙ্কার সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ। দলটির সর্ব নিম্ন দলীয় সংগ্রহ ৮৬। যে রেকর্ড হয়েছিল ১৯৭৫ আসরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে।

ব্যক্তিগত রেকর্ডের মালিক দিলশান ও ভাস:

২০১৫ আসরে বাংলাদেশের বিপক্ষে তিলকরত্নে দিলশানের অপরাজিত ১৬১ রান বিশ্বকাপ ইতিহাসে লংকান খেলোয়াড়দের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ইনিংস। অসাধারণ এ ইনিংস খেলার পথে ২২টি বাউন্ডারি হাকান তিনি।

বিশ্বকাপ ইতিহাসে এ ইনিংসে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারীদের তালিকায় জায়গা পেয়েছেন দিলশান।

বিশ্বকাপে এক ইনিংসে লংকান দলের সেরা বোলিং ফিগারের মালিক চামিন্ডা ভাস। ২০০৩ আসরে বাংলাদেশের বিপক্ষে তার ২৫ রানে ৬ উইকেট শিকার দলটির হয়ে সেরা বোলিং ফিগার।

দ্বিতীয় সেরা পারফরমেন্স ২০১১ বিশ্বকাপে কেনিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে লাসিথ মালিঙ্গার ৬/৩৮। মালিঙ্গা এবং ভাস উভয়েই বিশ্বকাপে হ্যাট্রিক করেছেন।

সাঙ্গাকারা এবং মুরলিধরনের ছিল ব্যাপক প্রভাব:

বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কা দলের সর্বোচ্চ ১৫৩২ রান সংগ্রহকারী কুমার সাঙ্গাকারা। যার মধ্যে রয়েছে পাঁচটি সেঞ্চুরি এবং সাতটি হাফ সেঞ্চুরি।

বিশ্বকাপ ইতিহাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী সাঙ্গাকারা একই সঙ্গে যৌথভাবে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির মালিকও।

বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার হয়ে সর্বোচ্চ ৬৮ উইকেট শিকারি মুত্তিয়া মুরলিধরন। বিশ্ব আসরে সবচেয়ে বেশি উইকেট শিকারির তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন তিনি।

শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটারদের আরও কিছু রেকর্ড:

সাঙ্গাকারা ছাড়াও দলটির আরও চার খেলোয়াড় সনাৎ জয়সুরিয়া, দিলশান, মাহেলা জয়বর্ধনে এবং অরবিন্দ ডি সিলভা বিশ্বকাপে এক হাজারের বেশি রান করেছেন।

উইকেটরক্ষক হিসেবে বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ ৫৪টি ডিসমিজালের রেকর্ড রয়েছে সাঙ্গাকারার দখলে। বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার হয়ে ১৬টি ক্যাচ নিয়েছেন জয়সুরিয়া।

এ ইভেন্টে শ্রীলঙ্কার হয়ে সর্বোচ্চ ২৮২ রানের পার্টনারশীপ উপুল থারাঙ্গা ও দিলশান জুটির।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × five =

আরও পড়ুন