ভারতে প্রতিদিন গড়ে ৯২ নারী ধর্ষণের শিকার: এনসিআরবি’র রিপোর্ট

ভারতে ধর্ষণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ভারতে প্রতিদিন গড়ে ৯২ জন নারী ধর্ষণের শিকার হন বলে জানিয়েছে দেশটির ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরো (এনসিআরবি)।

এনসিআরবি’র পরিসংখ্যানে বলা হয়েছে, ২০১৩ সালে দেশটিতে ৩৩ হাজার ৭০৭ জন নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। আগের বছর তা ছিল ২৪ হাজার ৯২৩টি।

ধর্ষণের দিক থেকে শীর্ষে অবস্থান করছে রাজধানী নয়া দিল্লি। মেডিকেল কলেজ ছাত্রী ‘নির্ভয়া’র ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় ব্যাপক তোলপাড় হলেও নয়াদিল্লিতে ধর্ষণ কমেনি বলে এনসিআরবি দাবি করেছে। রিপোর্টে বলা হয়েছে, ২০১৩ সালে দিল্লিতে ধর্ষণ হয়েছিল ১৬৩৬টি। এক বছর আগে অর্থাৎ ২০১২ সালে দিল্লিতে সরকারি খাতায় ধর্ষণ নথিভুক্ত করা হয়েছিল ৭০৬টি।

ধর্ষণে দিল্লির পরের স্থানেই আছে মুম্বাই। এ বাণিজ্য নগরীতে ২০১৩ সালে ধর্ষণ হয়েছে ৩৯১টি। এছাড়া, রাজস্থানের রাজধানী জয়পুরে ১৯২ এবং মহারাষ্ট্রের রাজধানী পুনেতে ১৭১টি ধর্ষণের ঘটনা নথিভুক্ত করা হয়েছে।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই ধর্ষিতার বয়স ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। ২০১৩ সালে দেশটিতে ৩৩, ৭০৭টি ধর্ষণের মধ্যে ১৩,৩০টি ঘটনাই নাবালিকা ধর্ষণের
চাঞ্চল্যকর তথ্য হলো, বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ধর্ষণকারী নির্যাতিতার পূর্বপরিচিত! ৯৪ শতাংশ ধর্ষণের ক্ষেত্রে ধর্ষিতা আগে থেকে ধর্ষককে চিনতেন। ৫৩৯টি ঘটনায় অভিযুক্ত মা-বাবা। ১০,৭৮২ ঘটনায় প্রতিবেশীরা অভিযুক্ত।

এর আগে জুলাই মাস কমনওয়েলথ হিউম্যান রাইটস ইনিশিয়েটিভ বা সিএইচআরআই ২০০১ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত প্রকাশিত অপরাধ বিষয়ক সংবাদ বিশ্লেষণ করে জানিয়েছিল, ভারতে গত ১৩ বছর ধরে দৈনিক গড়ে ৫৭টির বেশি ধর্ষণের খবর প্রকাশিত হয়েছে। অর্থাৎ প্রতি ঘণ্টায় গড়ে দুইটি করে ধর্ষণ হয়েছে এ সময়ে। গত ১৩ বছরে ভারতের ২৮টি রাজ্য এবং সাতটি ইউনিয়ন টেরিটরি বা ইউটি’তে ২,৭২,৮৪৪টি ধর্ষণ হয়েছে। এ সময়ে একমাত্র দিল্লিতে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ৮,০৬০টি।

এ ছাড়া, ভারতে গত ১৩ বছরে ধর্ষণের ঘটনা ৫২.৩০ শতাংশ বেড়েছে বলে এ বিশ্লেষণে উঠে এসেছে। এতে বলা হয়েছে, ২০০১ সালে ২৮টি রাজ্য এবং সাতটি ইউটি’তে ১৬,০৭৫টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটলেও ২০১৩ সালে ঘটেছে ৩৩,৭০৭টি। ভারতের ক্রিমিনাল অ্যামেনমেন্ট অ্যাক্ট ২০১৩-এর সংশোধনীর পর এ ধর্ষণের ঘটনা নথিভুক্ত হওয়ার হার বেড়েছে।

ভারতে আতঙ্কজনক হারে ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায় দেশ-বিদেশে ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে। পর্যটকরা ভারতে আসতে চাচ্ছে না। বিষয়টি উপলব্ধি করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশটির ৬৮তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে ভাষণে বলেছেন, ‘ ধর্ষণের কারণে আমাদের মাথা হেঁট হয়ে গেছে।’ তিনি ধর্ষণকে ‘ভারতের জন্য একটি লজ্জার উত্স’ হিসেবে অভিহিত করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

14 − two =

আরও পড়ুন