ইউপিডিএফ কর্তৃক অপহৃত মিতালী চাকমা ২মাস পর উদ্ধার

 

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাঙামাটি:

রাঙামাটির সদর উপজেলা থেকে অপহৃত মিতালী চাকমাকে উদ্ধার করেছে যৌথবাহিনী। মঙ্গলবার (২০নভেম্বর) সকালে রাঙামাটি সদরের সাপছড়ি ইউনিয়নের কুতুকছড়ির ডলুছড়ী গ্রাম থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়।

এ সময় ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের সহযোগী একই পরিবারের তিনজনসহ সর্বমোট চারজনকে আটক করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলো- ডুলুছড়ি গ্রামের মৃত পূর্ণবান চাকমার  ছেলে দয়াল মণি চাকমা (৫০), তার স্ত্রী রিতা চাকমা (৪৫) এবং তাদের ছেলে কোমার চাকমা (২৫) এবং একই গ্রামের প্রসন্ন কুমার চাকমার ছেলে সঞ্জিব চাকমা (২৯)।

যৌথবাহিনী সূত্রে জানানো হয়, রাঙামাটি সদরের সাপছড়ি ইউনিয়নের বোধিপুর নিজ বাড়ি থেকে মিতালী চাকমাকে জেএসএস সংস্কার এমএন লারমা গ্রুপের কর্মী কিংবা ইউপিডিএফ বর্মা গ্রফের কর্মী ভেবে অপহরণ করে ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের সশস্ত্র ক্যাডারা। দীর্ঘ দু’মাস ধরে নিরাপত্তাবাহিনী খোঁজ করতে থাকে মিতালীর। অবশেষে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার(২০ নভেম্বর) ভোরে ডুলুছড়ি গ্রামে অভিযান চালিয়ে মিতালী চাকমাকে উদ্ধার করা হয় এবং এ সময় ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের চারজন সহযোগীকে আটক করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে রাঙামাটি কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদুল হক রণি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। আটককৃতদের বিরুদ্ধে অপহরণের অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করা হবে বলে জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।

উল্লেখ্য, দু’মাস আগে রাঙামাটি সদরের সাপছড়ি ইউনিয়নের বোধিপুর গ্রামের বাসিন্দা ধনমণি চাকমার মেয়ে মিতালীকে জেএসএস সংস্কার এমএন লারমা গ্রুফের কর্মী কিংবা ইউপিডিএফ বর্মা গ্রুফের কর্মী ভেবে অপহরণ করে ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রফের সশস্ত্র ক্যাডারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

six − 2 =

আরও পড়ুন