মিয়ানমারের শরণার্থী অনুপ্রবেশের চেষ্টায় রুমা সীমান্তে সর্তকতা

নিজস্ব প্রতিনিধি:

বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তের রুমা উপজেলার ৭২নং সীমান্ত পিলার এলাকায় সর্তকতা জারি করেছে নিরাপত্তা বাহিনী। বাংলাদেশের খুব কাছাকাছি মিয়ানমার অভ্যন্তরে প্রায় দুইশ’ খুমি, খেয়াং, বম শরণার্থী বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করায় বাংলাদেশের পক্ষ থেকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

অপেক্ষমান শরণার্থীরা বর্তমানে রুমা উপজেলার রোমাক্রী পাংসা ইউনিয়নের চাইক্ষাং সীমান্তের ওপারে তিদং এলাকায় অবস্থান করছে বলে জানিয়েছেন সেখানকার ইউপি চেয়ারম্যান জিরা বম।

জানা গেছে, কিছু দিন যাবৎ মিয়ানমারের বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠণ আরাকান আর্মি ( এএ) এর সঙ্গে সে দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে একাধিক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ঘটনার সূত্র ধরে নিরাপদ আশ্রয় খুজে মিয়ানমারের নাগরিকরা রুমা সীমান্ত হয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করছে।এদিকে এই ঘটনার শুরু থেকে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বিজিবি ও সেনাবাহিনী টহল জোরদার করা হয়েছে।

রাখাইনের বুথিডং রাথিডং এলাকার স্থানীয়রা নিরাপদ জায়গায় সরে যেতে পারলেও চীন রাজ্যের প্লাতোয়া জেলার লোকজন সীমান্ত কাছে হওয়ায় বাংলাদেশের বান্দরবান সীমান্তে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করছে।

বিজিবির বান্দরবান সেক্টর কমান্ডার কর্নেল জহিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, শরণার্থীরা যাতে কোনো ভাবেই বাংলাদেশে প্রবেশ করতে না পারে সেজন্য সীমান্তে সতকর্তা জারি করা হয়েছে। সীমান্তের সম্ভাব্য স্থানগুলোতে টহল দল পাঠানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের আগস্টে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে নিরাপত্তা বাহিনী মুসলিম রোহিঙ্গাদের নিশ্চিহ্ন করে ব্যাপক হত্যাযজ্ঞ চালায়। মিয়ানমার সেনাবাহিনীর হত্যাযজ্ঞ থেকে বাচতে প্রায় ৭ লক্ষাধিক রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে এসে আশ্রয় নেয়।

 

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: রুমা, রোহিঙ্গা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 + 1 =

আরও পড়ুন