মিয়ানমারে নির্যাতনকারীদের বিরুদ্ধে আরও কঠোর হওয়ার আহ্বান জাতিসঙ্ঘ তদন্তকারীর

fec-image

মিয়ানমারের সিনিয়র সামরিক নেতাদের ওপর আরোপ করা মার্কিন অবরোধ আরও কঠোর ও আরও বেশিসংখ্যক জেনারেলের ওপর হওয়া উচিত চিল বলে মিয়ানমারে মানবাধিকার বিষয়ক জাতিসঙ্ঘ বিশেষ র‌্যাপোটিয়ার জানিয়েছেন।

থাইল্যান্ড ও মালয়েশিয়া সফর করে কুয়ালালামপুরে বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের ইয়াঙহি লি বলেন, রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর শুদ্ধি অভিযান চালানোর কাজে ভূমিকা রাখায় কমান্ডার-ইন-চিফ মিন অং লাইং ও অন্য তিনজনের বিরুদ্ধে যে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে, তা পর্যাপ্ত নয়।

তিনি বলেন, ব্যবস্থা গ্রহণ না করার চেয়ে দেরিতে গ্রহণ করা উত্তম। তিনি আরও বলেন, তাদের ও তাদের পরিবারের সব সদস্যের সব সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা উচিত। তাদের পরিবারের সদস্যদের ওপরও বিদেশ সফরে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা উচিত।

লিকে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ কখনোই তদন্তকাজের জন্য দেশটিতে যেতে দিতে রাজি হয়নি। লি বলেন, তদন্ত কার্যক্রম ভণ্ডুল করার জন্য প্রতিবেশী দেশগুলোর ওপর চাপ বাড়াচ্ছে মিয়ানমার।

রাখাইন রাজ্যে সামরিক বাহিনীর ২০১৭ সালের শুদ্ধি অভিযানের ফলে সাত লাখ ৩০ হাজারের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে যায়। এমনকি এখনো তাদের পালানোর ধারা অব্যাহত রয়েছে। চলতি বছর প্রায় ৩৫ হাজার লোক পালিয়ে গেছে বলে জানা গেছে।

আসিয়ানকে এগিয়ে আসতে হবে

মিয়ানমার পরিস্থিতি দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর শান্তি ও নিরাপত্তার প্রতি ক্রমবর্ধমান হুমকি সৃষ্টি করছে বলে লি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। তিনি মিয়ানমারের মানবাধিকার পরিস্থিতিকে অগ্রাধিকার দেয়ার জন্য আসিয়ান দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানান।

রোহিঙ্গাদের নিয়ে কর্মরত গেটানিয় ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা লিলিয়ান ফ্যানও লির বক্তব্যের সাথে একমত পোষণ করেন।

তিনি আল জাজিরাকে বলেন, আসিয়ানকে ভূমিকা পালন করতে হবে।

লি বলেন, মিয়ানমারের অব্যাহত সঙ্ঘাতের ব্যাপারেও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে আরো কিছু করতে হবে।

 

সূত্র:  সাউথ এশিয়ান মনিটর

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

17 − four =

আরও পড়ুন