“নিয়োগের ক্ষেত্রে কোন রকম দূর্নীতি, অনিয়ম, স্বজনপ্রীতি ও আর্থিক লেনদেন ছাড়াই ৫৯ জনকে নিয়োগ দেওয়া হয়।”

মেধাবী ও যোগ্যরা নিয়োগ পেয়েছেন: এসপি জাকির হোসেন

fec-image

বান্দরবান জেলা পুলিশ সুপার জাকির হোসেন মজুমদার বলেছেন- বান্দরবানে একটি স্বচ্ছ, নিরপেক্ষ এবং দূর্নীতি মুক্ত নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। নিয়োগের ক্ষেত্রে কোন রকম দূর্নীতি, অনিয়ম, স্বজনপ্রীতি ও আর্থিক লেনদেন ছাড়াই ৫৯ জনকে নিয়োগ দেওয়া হয়। তাদের প্রত্যেককে মেধা এবং যোগ্যতার ভিত্তিতে নেওয়া হয়েছে।

বুধবার (১০জুলাই) বিকালে বান্দরবান পুলিশ সুপার কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

এসময় তিনি বলেন- কনস্টেবল নিয়োগ পরীক্ষায় ২৪০ নারী-পুরুষ অংশ নেয়। এর মধ্যে ২০৪ জন পুরুষ ও ৩৬ নারী প্রার্থী। তাদের মধ্যে শারীরিক মাপ ও শারীরিক পরীক্ষায় ১৩৪ জন উত্তীর্ণ হয়। এদের মধ্যে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয় ৯৮ জন। পরে মৌখিক পরীক্ষায় ৫৭ জন পুরুষ ও ১৫ জন নারী প্রার্থী উত্তীর্ণ হয়। ডাক্তারী পরীক্ষা, পুলিশ ভেরিফিকেশন ও অন্যান্য কাগজপত্র যাচাই বাছাই শেষে চূড়ান্ত ভাবে ৫০ জন পুরুষ ও ৯ নারী সহ সর্বমোট ৫৯ জনকে বাংলাদেশের ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদে মনোনীত করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলী হোসেন, সহকারী পুলিশ সুপার রেজুয়ানুল হক, বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শহিদুল ইসলামসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

এসময় সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আলী হোসেন, রুমা সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজওয়ানুল হক, জেলা বিশেষ শাখা (ডিআইওওয়ান) মো. বাঁচা মিয়া, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম চৌধুরী, টিআই (প্রশাসন) সালাহ্ উদ্দিন মামুন, বান্দরবান প্রেসক্লাবের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বাচ্চু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিনারুল হকসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইল্ট্রেনিক মিডিয়ার সংবাদকর্মীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × 1 =

আরও পড়ুন