“বাসন্তী চাকমা পাহাড়ের বিচ্ছিন্নতাবাদী সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের এজেন্ট।”
বাসন্তী চাকমা এমপি’র এলাকা ত্যাগের দাবীতে

রবিবার খাগড়াছড়িতে সড়ক অবরোধ

fec-image

 

সংরক্ষিত নারী আসনে সংসদ সদস্য বাসন্তী চাকমা এমপি’র এলাকা ত্যাগসহ ৫দফা দাবীতে খাগড়াছড়িতে আগামী রবিবার(৯ জুন) সকাল-সন্ধ্যা সড়ক অবরোধের ডাক দিয়েছে পার্বত্য অধিকার ফোরাম

জাতীয় সংসদের তার দেওয়া সেনাবাহিনী ও বাঙালিদের বিরুদ্ধে বিষোদগারের প্রতিবাদে ও বাসন্তী চাকমা এমপি-কে এলাকা ছাড়ার দাবীতে শুক্রবার খাগড়াছড়িতে ঝাড়ু মিছিল ও সড়ক অবরোধ কর্মসূচি পালন শেষে বিকালে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ সড়ক অবরোধের কথা জানানো হয়।

পার্বত্য অধিকার ফোরামের দাবীগুলোর মধ্যে রয়েছে, বাসন্তী চাকমার উগ্র সাম্প্রদায়িক, মিথ্যা বক্তব্যের জন্য আনুষ্ঠানিক ভাবে সংসদে দাঁড়িয়ে জাতির কাছে ক্ষমা চেয়ে তার বক্তব্য প্রত্যাহার করে নেওয়া, অসাম্প্রদায়িক আওয়ামী লীগের সদস্য হয়েও উগ্র সাম্প্রদায়িক বক্তব্য প্রদান করায় তাকে মহিলা আওয়ামী লীগ হতে বহিস্কার করা, একজন অসাম্প্রদায়িক নারী কে সংরক্ষিত মহিলা আসনে সংসদ হিসেবে মনোয়ন দেওয়া।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে অভিযোগ করা হয়, গত ২৬ শে ফ্রেরুয়ারি’  মহান জাতীয় সংসদের ১ম অধিবেশনে বাসন্তী চাকমা এমপি তার বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাস কারী ৫১% শতাংশ বাঙালি জনগোষ্ঠি ও পার্বত্য চট্টগ্রামের অখন্ডতা রক্ষার দায়িত্বে নিয়োজিত দেশ প্রেমিক সেনাবাহিনীর নামে অপবাদ মূলক কথিত অসত্য, বানোয়াট বক্তব্য প্রদান করেছেন। তার বক্তব্য মহান মুক্তিযুদ্ধ ও ধর্মকে অবমাননা কর, উগ্র সাম্প্রদায়িক ও একপেশে।

মহান জাতীয় সংসদে বাসন্তী চাকমার দেওয়া বক্তব্য সম্পূর্নই মিথ্যা ও অন্য কারো দ্বারা সাজানো। সে কখনো বলেছেন, ১৯৮৬ আবার কখনো বলেছেন ১৯৯৬। বাসন্তী চাকমা পাহাড়ের বিচ্ছিন্নতাবাদী সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের এজেন্ট। বাসন্তী চাকমা সে সময়ের রাষ্ট্রদ্রোহী উপজাতী সশস্ত্র দুটি গ্রুপের সন্ত্রাসীদের ভাই বলে সম্বোধন করলেও বাংলাদেশের নাগরিকদের যারা পাহাড়ে মুক্তিযুদ্ধের সাথে জড়িত বাঙালি ও দেশ রক্ষায় নিয়োজিত সেনাবাহিনীকে বলেছেন, সেটেলার ও বহিরাগত খুনি।

বাসন্তী চাকমা স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের লেভেল জড়িয়ে ঘাপটি মেরে ছিলো- রাষ্ট্রদ্রোহী, বিচ্ছিন্নতাবাদী সশস্ত্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠির এজেন্ট।যখনই সুযোগ পেয়েছেন নিজের স্বরুপে ফিরেছেন। বাসন্তী চাকমা ২০০৮ ইউপিডিএফের প্রার্থী হিসেবে খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচন করেছেন।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে অভিযোগ করা হয়, যে পার্বত্য চুক্তির কারণে পাহাড়ে ২ দশকের সশস্ত্র সংঘাতের অবসান হয়ে পাহাড়ে শান্তির সু বাতাস বইছে। পাহাড়ে সার্বিক উন্নয়ন হচ্ছে, সাধারণ উপজাতীয়দের জীবনে উন্নয়ন হচ্ছে। সে পার্বত্য চুক্তির পক্ষে কোন বক্তব্য না দিয়ে বাসন্তী চাকমা চুক্তিবিরোধী ইউপিডিএফজেএসএস সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজদের সুরে কথা বলেছেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অবরোধ, খাগড়াছড়িতে, রবিবার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × 5 =

আরও পড়ুন