৬শ’ টাকার লোভে গেল প্রাঁণ

রামগড়ে টয়লেটের গর্ত থেকে মোবাইল তুলতে গিয়ে একজনের মৃত্যু

fec-image

খাগড়াছড়ির রামগড়ে টয়লেটের গর্তে পড়ে যাওয়া মোবাইল ফোন তুলতে গিয়ে বিষাক্ত গ্যাসে শ্বাসরুদ্ধ হয়ে মরণ মালাকার (৫০) নামে এক ব্যক্তি মারা গেছে।

শনিবার (১১ এপ্রিল) বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মরণ মালাকাররামগড় পৌরসভার গর্জনতলী এলাকার মৃত চন্দ্র মোহন মালাকারের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানায়, রামগড় পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের জগন্নাথপাড়া এলাকার বাসিন্দা ছায়ারাণী শীলের মেয়ে সীমা রাণী টয়লেটে ব্যবহার করতে গেলে মোবাইল ফোনটি টয়লেটের গর্তে পড়ে যায়। ফোনটি তোলার জন্য মরণ মালাকার নামে এক ব্যক্তিকে ডেকে আনা হয়। ৬শ’ টাকায় মোবাইল ফোনটি তুলে দেয়ার কথাবার্তা হওয়ার পর শনিবার বিকেল ৪টার দিকে ঐ টয়লেটের গর্তে নেমে পড়েন তিনি। গর্তের ভিতরে বিষাক্ত গ্যাসে শ্বাসকস্ট শুরু হলে তিনি বাঁচাও বাঁচাও বলে চিৎকার দিতে থাকেন। কিন্তু ঐ সময় বাড়িতে পুরুষ লোক না থাকায় মহিলাদের পক্ষে গর্ত থেকে তাকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। এর কিছুক্ষণ পরই সাড়া শব্দ বন্ধ হয়ে যায় তার।

এক প্রতিবেশী জানায়, গর্তে নামার সময় মদ্যপ অবস্থায় ছিল মরণ মালাকার।

এদিকে, খবর পেয়ে রামগড় ফায়ার সার্ভিস স্টেশন থেকে একদল উদ্ধারকর্মী ও পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়।

ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকর্মী মো. আরমান উদ্দিন জানান, মরণ মালাকার বেঁচে নেই। গর্তটি প্রায় ১৫ ফুট গভীর। টয়লেটের বিষাক্ত গ্যাসে নি:শ্বাস বন্ধ হয়ে মারা গেছে সে।

তিনি আরও বলেন, ঐ গর্তে অক্সিজেন দিয়ে তার লাশ উদ্ধার করতে হবে। এতে কিছু সময় লাগবে।

থানার সহাকারী পরিদর্শক (এসআই) মজিবুর রহমান জানান, লাশ উদ্ধারের পর পরবর্তী আইনী কার্যক্রম নেয়া হবে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত লাশটি উদ্ধারের অভিযান চলছিলো।

ঘটনাপ্রবাহ: মৃত্যু, রামগড়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen + six =

আরও পড়ুন