“উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নিউটন মহাজনের নামে মিথ্যা বানোয়াট, ভিত্তিহীন অভিযোগ এনে গত ২৯ মে'১৯ একটি স্যাটাস পোস্ট করা হয়।”

শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে দীঘিনালায় যুবলীগ নেতা বহিষ্কার

fec-image

দীঘিনালায় উপজেলা যুবলীগের এক নেতাকে বহিস্কার করা হয়েছে। বহিস্কৃত ওই নেতার নাম মোঃ আরিফ হোসেন। সে উপজেলা যুবলীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক। গত ১২ জুন খাগড়াছড়ি জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কেএম ইসমাইল স্বাক্ষরিত এক চিঠির মাধ্যমে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে, বহিষ্কার করা হয়।

বহিস্কারাদেশ পত্রের মাধ্যমে জানা যায়, দীঘিনালা উপজেলা যুবলীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আরিফ হোসেন তার ভেরীফায়েড ফেসবুক আইডি থেকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নিউটন মহাজনের নামে মিথ্যা বানোয়াট, ভিত্তিহীন অভিযোগ এনে গত ২৯ মে’১৯ একটি স্যাটাস পোস্ট করা হয়।

ফেসবুকে স্ট্যাটাস পোস্ট করার পর, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নিউটন মহাজন সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে সম্মানহানি হয়েছে মর্মে গত ৩০ মে’১৯ ইং জেলা যুবলীগের নিকট অভিযোগ দায়ের করেন। পরে জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কেএম ইসমাইল হোসেন ঘটনার সত্যতা যাচাই করে এক চিঠির মাধ্যমে ১০ জুন’১৯ সোমবারের মধ্যে, কেন বহিস্কার করা হবে না মর্মে কারণ দর্শানোর নোটিশ করেন।

গত ১০ জুন’১৯ সোমবারের মধ্যে কারণ দর্শানোর যথোপযুক্ত জবাব প্রদান না করায়, গত ১২ জুন বৃহস্পতিবার, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কে এম ইসমাঈল হোসেন স্বাক্ষরিত এক চিঠির মাধ্যমে, দীঘিনালা উপজেলা যুবলীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক এবং সদস্য পদ থেকে মো. আরিফ হোসেন কে সাময়িক বহিষ্কার করেন।

এব্যাপারে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নিউটন মহাজন জানান, মো. আরিফ হোসেন তার ভেরীফায়েড ফেসবুক আইডি থেকে, তার ব্যক্তি স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্যে, আমার সামাজিক মর্যাদা ক্ষুণ্ণ ও রাজনৈতিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্যে মিথ্যা বানোয়াট অভিযোগ প্রচার করছে।

এব্যাপারে উপজেলা যুবলীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মো. আরিফ হোসেন জানান, এগুলি আমার বিরুদ্বে ষড়যন্ত্র| মেরং উত্তর ইউনিয়ন শাখা আওয়ামী লীগের নির্বাচনে অংশ নেয়ার জন্যে, গত ১০ জুন’১৯ ইং উপজেলা যুবলীগ থেকে আমি পদত্যাগ করেছি। উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো. মোজাফফর হোসেন আমার পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেছেন। এছাড়া কারণ দর্শানোর নোটিশ জবাব দেয়ার জন্যে গত ১০ জুন সময় চেয়েছি, জেলা যুবলীগ সময় দিয়েছেন। পদত্যাগ এবং সময় চাওয়ার পর আমি কিভাবে বহিস্কার হই?

এব্যাপারে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো। মোজাফফর হোসেন জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কেএম ইসমাইল হোসেন স্বাক্ষরিত এক চিঠির মাধ্যমে বহিস্কারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দীঘিনালায়, বহিস্কার, যুবলীগ নেতা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

11 + 19 =

আরও পড়ুন