অতিরিক্ত যাত্রী নেয়ার প্রতিবাদ করায় পুলিশ সদস্যকে মারধর : আটক ১০

fec-image

বান্দরবানে ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সায় অতিরিক্ত যাত্রী নেয়ার প্রতিবাদ করায় এক পুলিশ সদস্যকে মারধর করেছে শ্রমিকেরা। এ ঘটনায় পুলিশ ১০ জন অটোরিক্সা চালককে গ্রেফতার করেছে। সোমবার (২৩ নভেম্বর) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, বান্দরবান শহরের ট্রাফিকমোড় থেকে বালাঘাটা যাওয়ার পথে ব্যাটারী চালিত একটি অটোরিক্সায় (টমটম) ৫ জন যাত্রী ছিলো। পাশাপাশি অনেক মালামালও ছিলো গাড়ীতে। এরপরও চালক আরও একজন অতিরিক্ত যাত্রী নিতে চাইলে প্রতিবাদ করে গাড়ীর যাত্রী পুলিশ সদস্য রনি শর্মা।

এক পর্যায়ে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে চালক’সহ অন্য শ্রমিকেরা। বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ের অটোরিক্সা চালক সোহেল এবং লাইনম্যান’সহ কয়েকজন পুলিশ সদস্যকে মারধর করে।

এ ঘটনায় ওই পুলিশ সদস্য সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে অটোরিক্সা চালক ১০ জন শ্রমিককে আটক করেছে। তবে ঘটনার মূলহোতা চালক সোহেল পলাতক রয়েছে।

অটোরিক্সা গাড়ি মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. আরিফ সাংবাদিকদের জানান, পুলিশ সদস্য এক যাত্রীর সঙ্গে অটোরিক্সার চালকদের বাকবিতণ্ডার খবর পেয়েছি। পরে কয়েকজন শ্রমিক পুলিশ সদস্যকে মারধর করেছে বলেও জেনেছি।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, অতিরিক্ত যাত্রী নেয়ায় আপত্তি করায় এক পুলিশ সদস্যকে মারধরের ঘটনায় ১০ জন অটোরিক্সা চালক শ্রমিককে আটক করা হয়েছে। ঘটনার বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত: বান্দরবান পৌর শহরের নয়টি ওয়ার্ডে অযান্ত্রিক যানবাহনের লাইসেন্সে বেটারী চালিত অটোরিক্সা (টমটম) গুলো চলাচল করছে। প্রশিক্ষণ বিহীন চালকদের বেপরোয়া গতিতে চলাচল, অতিরিক্ত যাত্রী বহন, অতিরিক্ত ভাড়া আদায় এবং উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন হেডলাইট ব্যবহার করে সড়কে চলাচলকারী অন্য যানবাহনগুলোর জন্য বিপজ্জনক হয়ে পড়েছে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আটক, পুলিশ, মারধর
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

13 − 9 =

আরও পড়ুন