অনিশ্চিত বান্দরবানের বাইশারী ইউপি নির্বাচন

fec-image

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের আসন্ন নির্বাচন নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদ বিভক্তিকরণ ও সীমানা সংক্রান্ত জটিলতার কারণে এই আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এর মাঝে যুক্ত হয়েছে উচ্চ আদালতের রিট, সীমানা বিরোধ নিষ্পত্তি ও রোহিঙ্গা ভোটার তালিকা থেকে বাদ দেওয়ার একটি অভিযোগ।

১৬৬৮ সনে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তান আমলে ১২৯.৫০ বর্গ কিলোমিটার এলাকা নিয়ে ২নং বাইশারী ইউনিয়ন গঠিত হয়। এই ইউনিয়নের পূর্বে দোছড়ি-আলীকদম ও ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন, উত্তরে ফাঁসিয়াখালী, পশ্চিমে খুটাখালী-ঈদগড়-গর্জনিয়া ইউনিয়ন এবং দক্ষিণে দোছড়ি ইউনিয়ন।

বান্দরবান জেলা প্রশাসন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচন কমিশনের আসন্ন তফসিল অনুযায়ী নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় বাইশারী ও দোছড়ি ইউনিয়ন দুটির নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে। কিন্তু বাইশারী ইউনিয়ন বিভক্তিকরণ নিয়ে উচ্চ আদালতে একটি রিট মামলা রয়েছে।

জানতে চাইলে এ বিষয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদিয়া আফরিন কচি বলেন, উচ্চ আদালতের ওই মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত আসন্ন বাইশারী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা স্থগিত, সীমানা বিরোধ মিমাংসা এবং রোহিঙ্গা ভোটার তালিকা থেকে বাদ দেওয়ার জন্য নুরুল আবছার একটি আবেদন করেছেন। বিষয়টি নির্বাচন কমিশন সিদ্ধান্ত নিবেন।

জানা গেছে, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের ডলুঝিরি পরিবেশ ও এগ্রো ফার্ম সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক নুরুল আবছার বিএসসি ২০০৮ সনের ৩০ অক্টোবর ইউনিয়ন পরিষদ বিভক্তিকরণ নিয়ে হাইকোর্ট বিভাগে রিট পিটিশন মামলা নং-৪৭৯১/০৮ দায়ের করেন। একই ব্যক্তি চলতি বছরের ২৫ জানুয়ারি বিভাগীয় কমিশনারসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিভাগে আরও একটি আবেদন করলে নির্বাচন আয়োজনে জটিলতা দেখা দেয়। বিষয়টি নিয়ে ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ বান্দরবান জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিরবিজী নির্বাচন কমিশনে একটি পত্র পাঠিয়েছেন।

এই বিষয়ে উচ্চ আদালতে রিটকারী নুরুল আবছার বিএসসি এই প্রতিবেদককে বলেন, ইউনিয়ন বিভক্তিকরণের জন্য ২০০৮ সনে উচ্চ আদালতের ধারস্থ হয়েছিলাম। আদালতের বিষয়টি সুরাহা না হওয়ার আগে তফসিল ঘোষণা হওয়ার সম্ভাবনা থাকায় চলতি বছরের ২৫ জানুয়ারি সংশ্লিষ্ট বিভাগে আরও একটি আবেদন করেছি। ওই আবেদনের প্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসক মহোদয় পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, মূলত ‘বরইচর নাকি ডলুঝিরি’ ইউনিয়ন হবে এই জটিলতার কারণে ইউনিয়ন গঠন কার্যক্রম থমকে গিয়েছিল। পরবর্তী নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বিদায়ী ও বর্তমান একাধিক উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরেজমিনে এলাকার মানুষের মতামত গ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ২৮৩নং ঈদগড়, ২৮০নং আলীক্ষ্যং ও ২৮১নং কোয়াংঝিরি মৌজার তিনটি ওয়ার্ড নিয়ে নতুন ইউনিয়ন পরিষদ গঠনের দাবি জানিয়ে আসছে স্থানীয়রা। ১০০ বর্গ কিলোমিটার সম্ভাব্য ওই ইউনিয়নের জনসংখ্যা প্রায় ১৩ হাজার এবং ভোটার সংখ্যা ২ হাজার ৫৫০ জন।

সর্বশেষ বাইশারী ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন হয়েছিল ২০১৬ সালের ২২ মার্চ। ভোট গ্রহণের ৫৭ দিন পর ১৮ মে গেজেট প্রকাশ করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ইউপি, নির্বাচন, বাইশারী
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twenty + 5 =

আরও পড়ুন