‘অপরাজিতা সম্মাননা পেলেন কনকচাঁপা চাকমা’

fec-image

শিল্প-সংস্কৃতিতে অবদানের জন্য  ‘এমজিআই বাঘবাংলা অপরাজিতা সম্মাননা’ পেয়েছেন কনকচাঁপা চাকমা। আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে যৌথভাবে এ পুরস্কার দিয়েছে মেঘনা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ ও বাঘবাংলা এন্টারটেইনমেন্ট। এসময় বিভিন্ন অঙ্গনে কাজের মাধ্যমে বাংলাদেশের সামগ্রিক উন্নয়নে অবদান রাখায় আরও ৭ নারীকে এ পুরস্কার প্রদান করা হয়।

রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে গতকাল মঙ্গলবার এক বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে তাঁদের হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেওয়া হয়। পুরস্কারপ্রাপ্ত নারীদের উত্তরীয় পরিয়ে দেন অতিথিরা। এ সময় তাঁদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকার চেক প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান এবং নারী ও শিশুবিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মেহের আফরোজ।

আটটি ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রেখেছেন, এমন আট বিশিষ্ট নারীকে পুরস্কারের জন্য মনোনীত করেন বিচারকেরা। শিল্প-সংস্কৃতিতে অবদানের জন্য কনকচাঁপা চাকমাকে এ পুরস্কার প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মেঘনা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের পরিচালক আশফাক উদ্দিন আহমেদ, জ্যেষ্ঠ মহাব্যবস্থাপক কাজী মো. মহিউদ্দিন, কমিউনিটি ব্যাংকের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক এস এম মঈনুল কবীর, বাঘবাংলা এন্টারটেইনমেন্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাকিল ইবনে সুলতান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, অনেক সংকট থাকা সত্ত্বেও দেশের প্রতিটি ক্ষেত্রে নারীরা অবদান রেখে চলেছেন। আজ প্রত্যন্ত অঞ্চলেও নারীরা স্নাতক পাস করে অবদান রাখছেন। সরকার নারীদের উন্নয়নে বিভিন্ন ক্ষেত্র তৈরি করছে বলেই এটা সম্ভব হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ‘কর্মক্ষেত্রে ও যাতায়াতে নারীদের নিরাপত্তার বিষয়ে আমাদের কাজ করতে হবে। পাশাপাশি আরও যেসব ক্ষেত্রে নারীদের সংকট রয়েছে, সেগুলো সমাধান করতে হবে।’

প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান বলেন, নানা প্রতিকূলতার মধ্য দিয়ে নারীরা সাহসী হয়েছেন। সমাজের সব খাতে তাঁরা জায়গা করে নিয়েছেন। আজ এই স্বীকৃতির মাধ্যমে নারীরা ভালো কাজের জন্য আরও উৎসাহ পাবেন।

দেশের উন্নয়নে নারীদের বড় ভূমিকা আছে বলে মনে করেন অনুষ্ঠানের আয়োজকেরা। তাঁরা বলেন, নারীদের উৎসাহ দিতে ভবিষ্যতে এ অনুষ্ঠান আরও বড় পরিসরে আয়োজন করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 − 1 =

আরও পড়ুন