অপহরণরের ১০২ ঘণ্টা পর ছাড়া পেলেন মানিকছড়ির যুবলীগ নেতা ইমন 

fec-image

মানিকছড়ি যুবলীগ নেতা ইমন অপহরণের ১০২ ঘণ্টা পর সন্ত্রাসীর কবল থেকে ছাড়া পেয়েছে। প্রশাসনিক, রাজনৈতিক ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতায় বৃহস্পতিবার (৬ জানুয়ারি) গভীর রাতে তাকে ছেড়ে দিয়েছে অপহরণকারী চক্র।

পুলিশ ও ইমনের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ১ জানুয়ারী সন্ধ্যা রাতে উপজেলার তিনটহরী ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মো. ইমান হোসেন ওরপে ইমন নিখোঁজ হয়। পরে ইমনের পরিবার এটি উপজাতি সন্ত্রাসী গোষ্ঠি কর্তৃক অপহরণ বলে দাবী করায় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠন এবং ব্যবসায়ীরা অবরোধ, বিক্ষোভে সড়ক অচল করে আন্দোলন শুরু করে হরতালের কর্মসুচী ঘোষণা করেন।

এতে পরিস্থিতি জটিলের আশংকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও জেলা পর্যায়ের রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ বিষয়টি হস্তক্ষেপ করে অপহৃত ইমনকে উদ্ধারে আন্তরিক হয়। যার ফলে দীর্ঘ ১০২ ঘণ্টা পর বৃহস্পতিবার ভোর রাত ৩টায় সিন্দুকছড়ি-লক্ষীছড়ি সড়কের দুল্যাতলীর উজানে ধুরংখাল পাড়ে তাকে রেখে পালিয়ে যায় অপহরণকারীরা। পরে ইমনের চাচা ও মানিকছড়ি সদর ইউপি চেয়ারম্যান মো.শফিকুর রহমান ফারুক ও ছোট ভাই মো. আকতার হোসেন তাকে উদ্ধার করে সকালে বাড়ী নিয়ে আসেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ইউপি চেয়ারম্যান মো. শফিকুর রহমান ফারুক বলেন, ইমন নিখোঁজের পর সাধারণ মানুষ, ব্যবসায়ী ও রাজনৈতিক কর্মীরা আন্দোলন সংগ্রামে প্রশাসন সতর্ক হওয়ায় এবং খাগড়াছড়ির সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরাসহ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ইমনকে উদ্ধারে নানাভাবে আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলগুলোর ওপর চাপ প্রয়োগ করায় বৃহস্পতিবার ভোর রাতে গহীভ অরণ্য থেকে অপহরণকারীরা ইমনকে অক্ষত অবস্থায় ধুরং ব্রীজের পাড়ে রেখে সরে যায়। পরে খবর পেয়ে আমরা তাকে উদ্ধার করে নিয়ে আসি।এই ঘটনায় যারা সহযোগিতা করেছেন তাঁদের সকলকে পরিবারের পক্ষ থেকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

মানিকছড়ি থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহনূর আলম সত্যতা স্বীকার করে বলেন, প্রশাসনিক ,রাজনৈতিক ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর জোর তৎপরতায় অপহরণকারীরা তাকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 + 10 =

আরও পড়ুন