অবিলম্বে নয়ন হত্যার সুষ্ঠু তদন্তের দাবি পিবিসিপি ও সমঅধিকার আন্দোলনের নেতৃবৃন্দের

IMG_20170602_142923
প্রেস বিজ্ঞপ্তি : গত ১ জুন বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় দিঘীনালা সড়কের চার মাইল নামক স্থানে উদ্ধারকৃত মোটর সাইকেল চালক নুরুল ইসলাম নয়ন হত্যার প্রতিবাদ ও তীব্র নিন্দা জানিয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রাম সমঅধিকার আন্দোলন, রাঙ্গামাটি জেলা শাখার সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম মুন্না, জেলা সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কামাল, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মো. আবু বক্কর ছিদ্দিক, পৌর কমিটির সভাপতি কাজী মো. জালোয়া, সাধারণ সম্পাদক মো. শাহজাহান আলম পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের জেলা সভাপতি মুহাম্মদ ইব্রাহীম, জেলা সি. সহসভাপতি মো. নজরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আসাদুজ্জামান খাঁন, সহ-সভাপতি মো. বাদশা, যুগ্ম সম্পাদক এহসান উল্লাহ মুন্না, কলেজ সভাপতি মো. নজরুল ইসলাম, পৌর কমিটির আহবায়ক মো. আবছার সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

নেতৃবৃন্দ বলেন, নিহতের পরিবার ও স্থানীয় জনগণের ভাষ্য মতে তাকে দুইজন উপজাতি যাত্রী ভাড়া নেওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে যায়। মহালছড়ির সাদিকুলকে যেভাবে ডেকে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে ঠিক একইভাবে লংগদু উপজেলার নুরুল ইসলাম নয়নকেও হত্যা করা হয়েছে। এ অঞ্চলকে বারবার অশান্ত করার অপচেষ্টায় উপজাতি সন্ত্রাসীদের একটি গ্রুপ কয়েকদিন পর পর পার্বত্য নিরিহ বাঙালিদের হত্যা, গুম, অপহরণ করেই যাচ্ছে, কিন্তু এগুলোর সুষ্ঠ তদন্ত পূর্বক বিচার না হওয়ায় আজ আবার এক নিরিহ মোটর সাইকেল চালককে অকালে জীবন দিতে হলো। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

আমরা লক্ষ্য করছি লংগদুতে বাঙালিরা যখন নয়নের লাশের জানাজা ও বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ব্যস্ত তখন জেএসএস কর্মীরা নিজেরা নিজেদের ঘরে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে। এটা তাদের পুরাতন অভ্যাস। এতে তাদের বিপুল লাভ। কারণ ছনের ঘরের পরিবর্তে টিনের ঘর ও সাথে বিপুল পরিমাণ ত্রাণ পায়। ২০১০ সালে বাঘাইছড়িতেও একই ঘটনা ঘটিয়েছিল। যে এলাকায় আগুন ধরানো হয়েছে সেটা সম্পূর্ণ চাকমা ও জেএসএস অধ্যুষিত এলাকা। স্বাভাবিক পরিস্থিতিতেই বাঙালিদের পক্ষে সেখানে প্রবেশ সম্ভব নয়। তাদের এই চক্রান্ত রুখে দাড়ানোর জন্য পাহাড়ের প্রতিটি শান্তিকামী মানুষের প্রতি আহবান জানাচ্ছি।

প্রশাসন সহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহবান জানাই অবিলম্বে এর সুষ্ঠ তদন্ত করে প্রকৃত দোষীদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনার জোর দাবী জানাচ্ছি অন্যথায় আমরা কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য থাকবে।

উল্লেখ্য, ২ জুন রাত ৯টায় সমঅধিকার কার্যালয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম সমঅধিকার আন্দোলনপার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের জেলা নেতৃবৃন্দের যৌথ সভায় পরবর্তী কর্মসূচী নির্ধারণ করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × five =

আরও পড়ুন