অবিশ্বাস্য গোলে সাবেক ক্লাবকে হারালেন হালান্ড

fec-image

প্রথমার্ধে সমতা ছিল। বিরতির পর গোল খেয়ে বসে ম্যানচেস্টার সিটি। চোখ রাঙাচ্ছিল পরাজয়। সেখান থেকে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ালো পেপ গার্দিওলার দল। শেষ দিকে এসে ৪ মিনিটের মধ্যে করলো দুই গোল।

বরুশিয়া ডর্টমুন্ডকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে টানা দ্বিতীয় জয় পেলো সিটি। ঘরের মাঠ ইতিহাদ স্টেডিয়ামে বুধবার রাতে ‘জি’ গ্রুপের ম্যাচটি ২-১ গোলে জিতেছে ইংলিশ চ্যাম্পিয়নরা।

জুড বেলিংহাম ডর্টমুন্ডকে এগিয়ে নেওয়ার পর সমতা টানেন জন স্টোনস। সাবেক ক্লাবের বিপক্ষে শেষদিকে এসে দারুণ এক্রোবেটিক এক গোলে জয় নিশ্চিত করেন আর্লিং হালান্ড। চ্যাম্পিয়নস লিগে কোচ হিসেবে এটি ছিল গার্দিওলার ১৫০তম ম্যাচ।

বল দখলে এগিয়ে থাকলেও প্রথমার্ধে পরিষ্কার সুযোগ তৈরি করতে পারেনি সিটি। বিরতির পর তারা বরং পিছিয়ে পড়ে ঘরের মাঠে। কর্নারের পর বক্সে বল পেয়ে যান মার্কো রয়েস। তার ক্রসে কাছ থেকে হেডে বল জালে পাঠান ইংলিশ মিডফিল্ডার বেলিংহাম।

পিছিয়ে পড়ে গোল শোধে মরিয়া হয়ে উঠে সিটি। কিন্তু বারবার তারা আটকে যাচ্ছিল ডর্টমুন্ডের রক্ষণে। অবশেষে ৪ মিনিটের ঝড়ে হাসি ফোটে স্বাগতিকদের মুখে।

৮০ মিনিটে কেভিন ডে ব্রুইনের পাসে ডি-বক্সের বাইরে থেকে বুলেট গতির শটে গোল করেন জন স্টোনস। ৮৪ মিনিটে হালান্ডের বিস্ময় গোল।

জোয়াও কানসেলোর ক্রসে বক্সে প্রতিপক্ষের দুই খেলোয়াড়ের মাঝে শূন্যে লাফিয়ে আলতো ভলিতে বল জালে পাঠান ডর্টমুন্ডের সাবেক স্ট্রাইকার। অবিশ্বাস্য প্রত্যাবর্তনে ২-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে পেপ গার্দিওলার দল।

গ্রুপের আরেক ম্যাচে সেভিয়ার সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছে কোপেনহেগেন। অন্যদিকে ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচে ডাইনামো জাগরেবের বিপক্ষে ৩-১ গোলে জিতেছে এসি মিলান। এই গ্রুপের আরেক ম্যাচে সালসবুর্কের সঙ্গে ১-১ ড্র করেছে চেলসি

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one + 13 =

আরও পড়ুন