অর্থমন্ত্রী ও কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের নামে চাঁদা চেয়ে আটক-১

fec-image

অর্থমন্ত্রী আ.হ.ম মোস্তফা কামাল ও কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেনের নামে মোবাইল ফোনে চাঁদা দাবি করা প্রতারক সোহেল আহমদ শেখ (৩৮) নামক একজনকে আটক করেছে পুলিশ। সে রোহিঙ্গা শরনার্থী শিবিরে ত্রাণ কার্যক্রমের কথা বলে এই চাঁদা দাবি করে আসছিল বলে জানাগেছে।

শনিবার (১৭ আগস্ট) সন্ধ্যার দিকে তার মোবাইল ফোন ট্রেকিং করে প্রতারক সোহেলকে গ্রেফতার করা হয়। বিষয়টি জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন, জেলা প্রশাসনের এনডিসি মো. শামীম হোসাইন ও সদর মডেল থানার ওসি ফরিদ উদ্দিন খন্দকার নিশ্চিত করেছেন।

জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন বলেন, প্রতারক সোহেল আহমদ অর্থমন্ত্রী ও জেলা প্রশাসক কক্সবাজারের পক্ষে পরিচয় দিয়ে অর্থ ও ত্রাণ সহায়তা চেয়ে বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানে ফোন দিয়েছিল। বিভিন্ন জনকে মোবাইল ফোনে কল দিয়ে চাঁদা দাবি ও প্রতারণা করে আসছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার সন্ধ্যায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক আরও বলেন, যদি প্রশাসনের পরিচয় দিয়ে আর কেউ ফোন করে তাহলে আমাদের জানানোর জন্য অনুরোধ করছি। এদিকে, আটক প্রতারক সোহেল আহমদ শেখ প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে-গত কয়েক মাস থেকে সে এ ধরনের প্রতারণা করে আসছে।

শনিবার ১৭ আগস্ট রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্পে ত্রাণ কার্যক্রমের কথা বলে মোবাইল ফোন রবি নম্বর থেকে দেশের একটি ওষুধ কম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালকের কাছে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেনের নামে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করা হয়। দাবিকৃত চাঁদার টাকার জন্য ওই ওষুধ কম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালককে বার বার ধমকের সুরে তাগিদ দেওয়ার কারণে তার সন্দেহের সৃষ্টি হয়।

বিষয়টি নিয়ে ওই ওষুধ কোম্পানিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক কক্সবাজার জেলা বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) সাধারণ সম্পাদক ডা. মাহবুবুর রহমানকে বিষয়টি জানান।

তৎক্ষণাৎ ডাঃ মাহবুবুর রহমান জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেনের সাথে যোগাযোগ করলে বিষয়টি প্রতারণা বলে নিশ্চিত হওয়া যায়। এরপর আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর হয়ে প্রতারক সোহেল আহমদ শেখকে আটক করে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three + three =

আরও পড়ুন