অস্ত্র ও নগদ টাকাসহ চার ইউপিডিএফ চাঁদাবাজ আটকের ঘটনায় মামলা

fec-image

দীঘিনালায় অস্ত্র ও নগদ টাকাসহ ৪ ইউপিডিএফ( প্রসীত) কর্মী আটকের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। বুধবার(৩ মার্চ) দুপুরে পুলিশ বাদী হয়ে দীঘিনালা থানায় অস্ত্র ও চাঁদাবাজি আইনে মামলা করেন।

পুলিশ জানায়, গত মঙ্গলবার ভোরে পুলিশ ও নিরাপত্তাবাহিনীর যৌথ অভিযানে এবং গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার ৪নং দীঘিনালা ইউনিয়নের বানছড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় পরাজয় চাকমার সেগুন বাগানে অভিযান পরিচালনা করে, কবাখালী ইউনিয়নের কৃপাপুর গ্রামের মৃত আরনন্দ চাকমা ছেলে প্রত্যয় চাকমা ওরফে প্রীতি (৪২), দীঘিনালা ইউনিয়নের মধ্য বানছড়া গ্রামের চন্দ্র দেব চাকমার ছেলে সমর বিজয় চাকমা ওরফে নিবেদন চাকমা(৩৬), ভিতর বানছড়া গ্রামের মৃত জীতেন্দ্র লাল চাকমার ছেলে পূর্ণ জীবন চাকমা ওরফে দিগন্ত চাকমা(৪২) এবং রাঙামাটি জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলার বংগলতলী ইউনিয়নের হাগলাছড়া গ্রামের প্রিয় রঞ্জন চাকমার ছেলে বিধু ভূষণ চাকমা অনিক(৫২) কে আটক করা হয়।

এসময় তাদের সাথে থাকা ১টি PBRETTA পিস্তল (USA), ১টি কাঠের বাট সংযুক্ত পিস্তল,
৩টি ম্যাগজিন এবং ৪০ রাউন্ড গুলি, নগদ ৫ লক্ষ ৭৪ হাজার ৫শত ২১ টাকা, ৭টি বাটন ফোন, ১টি এন্ডােয়েট ফোন এবং ১০টি সিম, ছােট বড় ৪টি ব্যাগ। এছাড়া ৭টি চাঁদা আদায়ের রশিদ বই উদ্ধার করা হয়।

এদিকে আটককৃতদের নিজেদের কর্মী বলে স্বীকার করে গণমাধ্যমের কাছে প্রতিবাদ লিপি পাঠিয়েছে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রাটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ)।

ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রাটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) প্রচার ও প্রকাশনা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নিরন চাকমা স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলন দমনের জন্য পরিকল্পিতভাবে ইউপিডিএফ’র ওপর রাজনৈতিক দমন-পীড়ন চালানো হচ্ছে। তারই অংশ হিসেবে নেতা-কর্মীদের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার-নির্যাতন, মিথ্যা মামলা দিয়ে বছরের পর বছর কারান্তরীণ রাখা হচ্ছে। এমনকি গণতান্ত্রিক কর্মসূচি পর্যন্ত পালন করতে দেওয়া হচ্ছে না। বিবৃতিতে তিনি, অবিলম্বে গ্রেফতারকৃত চার ইউপিডিএফ সদস্যকে নিঃশর্ত মুক্তি দেয়ার দাবি জানান।

দীঘিনালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) উত্তম চন্দ্র দেব ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এঘটনায় চাঁদাবাজি এবং অস্ত্র আইনে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: অস্ত্র, আটকের, ইউপিডিএফ
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

16 − 9 =

আরও পড়ুন