আদর্শ শিক্ষকের দায়িত্ব হচ্ছে জ্ঞান ভাণ্ডারের রাস্তা দেখানো: দীপংকর তালুকদার

fec-image

আদর্শ শিক্ষকের দায়িত্ব মাছ ধরে ধরে খাওয়ানো নয়, আদর্শ শিক্ষকের দায়িত্ব হচ্ছে মাছ ধরা শেখানো। আদর্শ শিক্ষকের দায়িত্ব একজন শিক্ষার্থীকে পাস করিয়ে দেয়া নয়, আদর্শ শিক্ষকের দায়িত্ব হচ্ছে সে যেন জ্ঞান ভান্ডারের রাস্তাটি দেখায়।

সোমবার (২৭ জানুয়ারি) বিকেলে রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের উদ্যোগে শিক্ষা উপবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাঙ্গামাটি আসনের সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, আমরা সকলেই তো স্বপ্ন দেখি। তোমরা ঘুমের ঘরে যা দেখ সেটি স্বপ্ন নয়, স্বপ্ন হলো সেটি যেটি তোমাদের ঘুমাতে দেয় না। অর্থাৎ আমাদের একটি লক্ষ্য থাকবে। সে লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য দিন রাত পরিশ্রম করতে হবে। এটিই হচ্ছে স্বপ্ন। যে স্বপ্ন ছিলো জাতির পিতা বঙ্গ বন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের।

তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, উপবৃত্তি দেয়া হয়েছে সকল প্রকার খরচ মেটানোর জন্য নয়। এটি তোমাদের ভিতরের স্বপ্নকে জাগানোর জন্য। স্বপ্নটিকে পুরণ করার জন্য যে তাগিদ এই তাগিদের জন্য উপবৃত্তি দেয়া হচ্ছে ।

এসময় রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা ছাদেক আহমদ, রাঙ্গামাটি জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ ছুফি উল্লাহ, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ সদস্য হাজী মোঃ কামাল উদ্দিন, রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ সদস্য হাজী মোঃ মুছা মাতব্বর, রাঙ্গামাটি জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা উত্তম খীসা প্রমুখ।

বিষয় ভিত্তিক শিক্ষা উপবৃত্তি প্রাপ্তদের সংখ্যা হলো উচ্চ মাধ্যমিক ৫ হাজার টাকা করে মোট ৫০ জন, ডিপ্লোমা ছাত্র ছাত্রীদের ৫ হাজার টাকা করে ২৫ জন, স্নাতক শিক্ষার্থীদেরকে ৮ হাজার টাকা করে ২৫ জন, স্নাতক (সম্মান) ৮ হাজার টাকা করে ২৫ জন, মেডিকেল, প্রকৌশল ও কৃষি শিক্ষার্থীদের ১০ হাজার টাকা করে ২৫ জন, স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থীদের ১০ হাজার টাকা করে ২৫ জন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × 4 =

আরও পড়ুন