আলীকদমে একটি মামলাবাজ পরিবারের কাছে জিম্মি স্থানীয়রা

fec-image

বান্দরবানের আলীকদমে চৈক্ষ্যং ইউনিয়নের ছিদ্দিক কার্বারী পাড়ার তাহের মিয়ার পরিবারের সদস্যদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে স্থানীয় বাসিন্দারা। এ পরিবারটি ভূমি বিরোধের জের ধরে এলাকার সাধারণ মানুষকে মামলার জালে জড়িয়ে ফেলছে। তাদের মামলার জাল থেকে রক্ষা পায়নি খোদ পুলিশ কর্মকর্তাও।

অবশেষে এ পরিবারটির অপকর্মের বিরুদ্ধে ক্ষোভ জানানো হয়েছে আলীকদম উপজেলা মাসিক আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায়।অনুসন্ধানে জানা গেছে, সংখ্যালঘু পরিবার থেকে শুরু করে পুলিশ কর্মকর্তা, ব্যবসায়ী, স্থানীয় বাসিন্দারা নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে তাহের মিয়ার পরিবারের সদস্যদের মাধ্যমে।

সোমবার (১৩ জানুয়াুরি) উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় চৈক্ষ্যং ইউপি চেয়ারম্যান অভিযোগ করেন, মৃত তাহের মিয়ার পরিবারের সদস্যরা একের পর এক স্থানীয় বাসিন্দাদের সাথে ভূমিতে বিরোধে জড়িয়ে পড়ছে। তাদের কারণে চৈক্ষ্যং ইউনিয়নের ছিদ্দিক কার্বারী পাড়া এলাকায় প্রায়সময় আইন-শৃঙ্খলার অবনতি হচ্ছে। হয়রানী হচ্ছে সাধারণ মানুষ।

সংখ্যালঘু বাসিন্দা দীনবন্ধুর ছেলে নুনু চন্দ্র দে জানান, ২৮৯নং চৈক্ষ্যং মৌজায় আর/৩২৫ নং হোল্ডিং-এ ২০ শতক জমি রয়েছে তার পিতার নামে। একযুগের বেশী সময় ধরে তিনি বাড়ি নির্মাণ করে সপরিবার বসবাস করছিলেন। কিন্তু তাহের মিয়ার ওয়ারিশরা হিন্দু পরিবারের এ জমিটি আর/৫১ হোল্ডিং এর দাবি করে বান্দরবানে পিটিশন মামলা নং- ৭৪/২০১৪ দায়ের করলেও সার্ভেয়ার দীনবন্ধুর পক্ষে তদন্ত প্রতিবেদন দেন। পরে আদালত মামলাটি নথিজাত করেন। কিন্তু শেষ রক্ষা পায়নি সংখ্যালঘু পরিবারটি। এ জমি জবরদখল করে নেয় তাহের মিয়ার পরিবারের সদস্যরা।

মোহাম্মদ উল্লাহ ও জসিম উদ্দিন অভিযোগ করে বলেন, তারা ২৮৯নং চৈক্ষ্যং মৌজার ৩২৫ নম্বর হোল্ডিং থেকে ১৮ শতক জমি সাফ রেজিস্ট্রী দলিল মুলে ক্রয় করে দোকান নির্মাণ করেন। কিছুদিন আগে দোকান ভেঙ্গে পাকাভবন নির্মাণের সময় তাহের মিয়ার ছেলে শাহ আলম অতর্কিত আক্রমণ করে একই এলাকার আব্দুল হাকিমকে লোহার রড দিয়ে মেরে রক্তাক্ত জখম করে। এ জমির বিষয়ে শাহ আলম গং বিজ্ঞ আদালতে পিটিশন মামলা নং- ১৪৫/১৯ দায়ের করে। এরপর জমি দখলে দোকান ঘর নির্মাণের চেষ্টা চালাচ্ছে। এ নিয়ে ভূক্তভোগীরা ইউএনও বরাবর অভিযোগ দায়ের করেন।

উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা মিটিং-এ তাহের মিয়ার পরিবারের সদস্যদের নানা অপকর্মের বিরুদ্ধে অনেকক্ষণ আলোচনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কমিটির সদস্য সচিব ওসি কাজী রকিব উদ্দিন।

জানতে চাইলে চৈক্ষ্যং ইউপি চেয়ারম্যান ফেরদৌস রহমান বলেন, উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় তাহের মিয়ার পরিবারের সদস্যরা দ্বারা আইন-শৃঙ্খলার অবনতি, স্থানীয়দের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়রানীসহ একাধিক বিষয় আলোচিত হয়েছে।

তিনি আরও বে থানার একজন সাবেক ওসির বিরুদ্ধেও এ পরিবারের একজন সদস্যা কর্তৃক আদালতে মিথ্যা মামলা করেছে। মিটিং-এ অনেক সদস্যই এ পরিবারটির নানা অপকর্মের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আলীকদম, দখল, সংখ্যালঘু
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × 1 =

আরও পড়ুন