আলীকদমে হুমকীর মুখে জীববৈচিত্র্য

আলীকদম (বান্দরবান) প্রতিনিধি:
পাহাড়ি জেলা বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় অব্যাহত বন ধ্বংসের কারণে জীববৈচিত্র্য হুমকীর মুখে পড়েছে। নষ্ট হচ্ছে পরিবেশের ভারসাম্য। দিনদিন প্রাকৃতিক সৃষ্ট বন ও সংরক্ষিত বনাঞ্চলে বৃক্ষ নিধন চলছেই। উপরন্ত প্রতিবছর সনাতনী পন্থায় উপজাতিদের জুম চাষের ফলেও বনধ্বংস হচ্ছে। ফলে বন্যপ্রাণিরা আবাসস্থল হারিয়ে সংকটের মূখে পড়ে বিলীন হচ্ছে।

এলাকার প্রবীণ লোকেরা জানান, অপরিকল্পিত ইটভাটা স্থাপন, ইটভাটায় কয়লার পরিবর্তে কাঠ পোড়ানো, প্রাকৃতিক ও সংরক্ষিত বনাঞ্চল কমে যাওয়ায় আবাসস্থল সংকটের মূখে পড়েছে নানা প্রজাতির পশুপাখি। ইটভাটা স্থাপনে পরিবেশ অধিদপ্তরের অনুমতির প্রয়োজন হলেও এ উপজেলায় তার বালাই নেই। ইটভাটা স্থাপনে সংশ্লিষ্ট কোন বিধি-বিধানকে তোয়াক্কা করেন না প্রভাবশালী মহল। ইটভাটায় অভৈধভাবে কাঠ পোড়াতে গিয়ে মালিকরা অর্থদ্ধন্ডেরও শিকার হয়েছেন। কিন্তু পরিস্থিতি বদলায়নি কোনো কিছুতে। নির্বিচারে বন ধ্বংসের কারণে পাহাড়ের সবুজাভ বনাঞ্চলে আশংকাজনকভাবে কমে যাচ্ছে।

ক্রমান্বয়ে বন ধ্বংসের ফলে জীব-প্রাণী বৈচিত্র হুমকীর বিষয়ে স্থানীয় পরিবেশ ও মানবাধিকার কর্মী মনিন্দ্র ত্রিপুরা বলেন, প্রাকৃতিক পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট হয়ে পড়ায় প্রাণি বৈচিত্র্য হুমকির মুখে পড়েছে। প্রাণী বৈচিত্র্য রক্ষায় সরকারী বেসরকারী উদ্যোগ ছাড়া মুক্তির উপায় দেখা যাচ্ছেনা।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five × five =

আরও পড়ুন