ইউনিয়ন পরিষদের এজলাসে বসে প্রার্থীর নির্বাচনী কর্মী সমাবেশ

fec-image

কক্সবাজারের পেকুয়ায় নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘন করে ইউনিয়ন পরিষদের এজলাসে বসে কর্মী সমাবেশ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে এক চেয়ারম্যান প্রার্থীর বিরুদ্ধে। এসব আচরণ বিধি লঙ্ঘনে নেই প্রশাসনের তদারকি।

১৩ সেপ্টেম্বর বিকালে টইটং ইউনিয়ন পরিষদের এজলাসে টইটং ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের কর্মী সমাবেশ করেন ক্ষমতাশীন দলের মনোনীত প্রার্থী সাবেক বহিস্কৃত চেয়ারম্যান নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রার্থীদের অভিযোগ নির্বাচনী আইন ও আচরণ বিধি অনুযায়ী কোন প্রার্থী পরিষদের এজলাসে নির্বাচনী কর্মী সমাবেশ করতে পারে না। তাছাড়া সরকারি ভবনের হলরুমে ও সমাবেশ করতে পারে না। এজলাসে বসে নির্বাচনী কর্মী সমাবেশ করা আচরণ বিধি লংঘন শামিল। কিন্ত নৌকা প্রতিকের প্রার্থী প্রতিনিয়ত আচরণ বিধি লঙ্ঘন করে যাচ্ছেন। এতে প্রশাসন কোন ধরনের ব্যবস্থা নিচ্ছেন না তার বিরুদ্ধে। জেনেও মান করে আছেন নির্বাচন কর্মকর্তা। নেই কোন মোবাইল কোর্ট। প্রার্থীরা যার যার মত করে প্রচারণা চালাচ্ছেন।

এ বিষয়ে জানতে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাহেদুল ইসলাম চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ভাই আমি আচরণ বিধি লঙ্ঘন করি নাই। পরিষদের এজলাসে কর্মী সমাবেশ করছেন কেন জানতে চাইলে তিনি বলেন পরিষদ হচ্ছে ৫নং ওয়ার্ডের ভোট কেন্দ্র। তাই ভোট কেন্দ্রে মিটিং করতে পারবো। অনেক প্রার্থী আচরণ বিধি সম্পর্কে না বুঝে আমার বিরুদ্ধে অহেতুক অভিযোগ করছেন।

এ প্রসঙ্গে রিটানিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ইরফান উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, কোন সরকারি ভবনের হলরুমে কোন প্রার্থী তার নির্বাচনী কোন সমাবেশ করা আচরণ বিধি লঙ্ঘন। আমাকে প্রার্থীরা জানিয়েছেন তাদেরকে লিখিত অভিযোগ দিতে বলেছি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twenty − 16 =

আরও পড়ুন