উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের আগুন নিয়ন্ত্রণে, পুড়েছে ১২’শ ঘর

fec-image

কক্সবাজারের উখিয়া পালংখালী শফিউল্লাহকাটা ১৬ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের আগুন রাত ৬টার দিকে নিয়ন্ত্রণে এসেছে। প্রাথমিকভাবে ১২০০টি ঘর পুড়ে গেছে বলে ধারণা করেছেন দায়িত্বশীলরা। তবে তাৎক্ষণিক হতাহতের কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ক্যাম্পে আইনশৃংখলার দায়িত্বে নিয়োজিত ৮ এপিবিএন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কামরান হোসেন। তিনি বলেন, ক্যাম্পের একটি বসতি ঘরের  গ্যাস সিলিন্ডার থেকে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে।

রবিবার (৯ জানুয়ারি) বিকাল ৫টার দিকে উখিয়া পালংখালী ১৬ নং ক্যাম্পে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে এপিবিএনের পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের দলসহ ক্যাম্পের লোকজন এগিয়ে এসে আগুন নেভাতে কাজ করে। পরবর্তীতে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হন।

প্রত্যক্ষদর্শী ১৬ নং ক্যাম্পের বাসিন্দা নুরুল আমিন নামে এক রোহিঙ্গা জানিয়েছেন, ” আগুন দেখার পর পরিবার পরিজন নিয়ে আমরা বেরিয়ে এসেছি, আল্লাহ আমাদের রক্ষা করুক।”

উখিয়া ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ এমদাদ হোসেন বলেন, সন্ধ্যা ৬টার দিকে আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হই। এই আগুনে নেভাতে কক্সবাজার জেলার ফায়ার সার্ভিসের ৮টি ইউনিট কাজ করেছে। কি পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা এখনো নিরুপন করা যায়নি বলে তিনি জানিয়েছেন।

উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এই বছর এটি দ্বিতীয় অগ্নিকান্ডের ঘটনা, এর আগে চলতি বছরের গত ২ জানুয়ারি (রবিবার) উখিয়ার ২০ এক্সটেনশন রোহিঙ্গা ক্যাম্পে একটি করোনা আইসোলেশন সেন্টারে আগুন লাগে। সে ঘটনায় হতাহত না হলেও পুড়ে যায় হাসপাতালটির ৭০ শয্যা, হয় ৮ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি।

উল্লেখ্য, গতবছরের ২২ মার্চ উখিয়ার তিনটি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে স্মরণকালের ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। যে ঘটনায় প্রায় দশ হাজারের বেশি ঘর পুড়ে যায়, ক্ষতিগ্রস্ত হয় দুই লক্ষাধিক রোহিঙ্গা এবং ঘটে ১১ জনের প্রাণহানি।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twenty − three =

আরও পড়ুন