উখিয়ার শফিউল্লাহকাটা ক্যাম্পে চাকরি করছে ১১০৪ জন রোহিঙ্গা

fec-image

উখিয়ায় ছোট-বড় মিলে ২২টি রোহিঙ্গা ক্যাম্প রয়েছে। তৎমধ্যে শফিউল্লাহকাটা-১৬নং ক্যাম্পে ১১০৪ জন রোহিঙ্গা বিভিন্ন এনজিওতে কর্মরত রয়েছে। এসব রোহিঙ্গাদের চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়ার জন্য স্থানীয় একেএম সাইফূল ইসলাম এবং এসএমজি মুফিজ উদ্দিন সংশ্লিষ্ট ক্যাম্প ইনচার্জসহ সরকারি বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

অভিযোগে জানা গেছে, এনজিওতে রোহিঙ্গারা চাকরি পেলেও স্থানীয় ছেলে/মেয়েরা বেকার অবস্থায় ঘুরাঘুরি করছে। তাছাড়া রোহিঙ্গারা চাকরি করে আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হয়ে উঠায় প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া বার বার বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

স্থানীয় অভিযোগকারী মুফিজ উদ্দিন জানান, শফিউল্লাহকাটায় রোহিঙ্গা সেবায় নিয়োজিত এনজিও কেয়ার বাংলাদেশে ১৯৫ জন রোহিঙ্গা চাকরি করছে বিভিন্ন পদে। এ ছাড়াও ওয়াল্ড ভিশনে ৫০ জন, ব্রাকে ১৪৫ জন, ওয়াল্ড কনসানে ৪৫ জন, আহসানিয়া মিশনে ৬০ জন, ডিএসকে ৮২ জন, ফ্রেন্ডশীপে ৬০ জন, এমএসএফে ১৩০ জন, রিসডাতে ৩৬ জন সহ ২৭টি এনজিওতে ১১০৪ জন রোহিঙ্গা ছেলে/মেয়ে চাকরি করছে বলে সে অভিযোগে উল্লেখ করেন।

তবে এ নিয়ে সংশ্লিষ্ট ক্যাম্প ইনচার্জ কাজী ওমর ফারুকের নিকট জানতে চাইলে মোবাইল সংযোগ না পাওয়ায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

এদিকে সূত্রে আরও জানা গেছে, গত ২৩ সেপ্টেম্বর এনজিও বিষয়ক ব্যুরো থেকে শরনার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনারের নিকট প্রেরিত পত্রে উল্লেখ করে বলা হয়, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে টিচার এবং মিডওয়াইফাই ছাড়া আর কোন পদে চাকরি করতে পারবেন না। কিন্তু কোন ক্যাম্পে এ আদেশ বাস্তবায়ন করেনি।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: উখিয়ার, রোহিঙ্গা, শফিউল্লাহকাটা ক্যাম্পে
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 − eight =

আরও পড়ুন