উখিয়ায় নিজ ঘরে নারী এনজিও কর্মীর রহস্যজনক মৃত্যু

fec-image

উখিয়ার রত্নাপালং ইউনিয়নের ভালুকিয়া পালংয়ে কবরী বড়ুয়া অপু নামক এক গৃহবধূর মৃত্যু নিয়ে শুনা যাচ্ছে নানা কথা। কবরী বডুয়া ওই এলাকার সন্তোষের পুত্র উপেল বডুয়ার বউ। মুক্তি নামক একটি এনজিওতে চাকরি করতেন কবরী।

রত্মাপালং ইউপির চেয়ারম্যান খাইরুল আলম চৌধুরী জানান, রাতে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নেয়ার পথে কবরীর মৃত্যু হয়।

তবে স্থানীয়ভাবে শোনা যাচ্ছে স্বামীর বাড়িতে নির্যাতনে সে নিহত হয়। নিহত গৃহবধূ মুক্তি এনজিওতে কর্মরত ছিলেন।

একটি সূত্র জানিয়েছে এনজিওতে চাকরির সুবাদে স্বামীর সাথে কবরীর প্রায় ঝগড়া হত। গত রাতেও স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে রাতে কবরী গলায় উড়না পেঁচিয়ে ঘরের তীরের সাথে ফাঁসিতে ঝুলে।

খবর পেয়ে স্বজনেরা তাকে উখিয়া সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্ত্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করে। তার লাশ সকাল ১১ টা পর্যন্ত হাসপাতালে রয়েছে।

স্থানীয় মেম্বার পুতুল রাণী জানান, কবরী এনজিওতে চাকরির কারণে স্বামী স্ত্রী প্রায় ঝগড়া হত। গত রাতেও নাকি ঝগড়া হয়েছে এবং কবরীকে নির্যাতন করা হয়েছে বলে তিনি শুনেছেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: এনজিও, গৃহবধূর মৃত্যু
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × one =

আরও পড়ুন