উখিয়ায় রোহিঙ্গাদের খাবার বিতরণে এনজিও সংস্থা ফ্রেন্ডশিপের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

fec-image

উখিয়া প্রতিনিধি:

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের মাঝে খাবার বিতরণে এনজিও সংস্থা ফ্রেন্ডশিপ ইন্টারন্যাশনালের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনার অভিযোগ উঠেছে।

গত কয়েকদিন ধরে রান্না করা নিম্ন মানের খাবার নিয়েও রোহিঙ্গাদের মধ্যে প্রচণ্ড ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

ফ্রেন্ডশিপ ইন্টারন্যাশনালের জি.বি.ভি কর্মসূচির প্রোগ্রাম ম্যানেজার সানজিদা আক্তার জানান, খাবারের গুণগত মান নিয়ে রোহিঙ্গারা অসন্তুষ্ট হওয়ার বিষয়টি তিনি শুনেছেন। এ ব্যাপারে খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

খোঁজ খবর নিয়ে জানা যায়, এনজিও সংস্থা ফ্রেন্ডশিপ ইন্টারন্যাশনাল এর অধীনে জেন্ডার বেইস বাইলেন্স (জি.বি.ভি) কর্মসূচির আওতায় প্রতিদিন উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ১ হাজার ২শত ৮০ জনের জন্য রান্না করা খাবার সরবরাহ করা হচ্ছে। গত কয়েকদিন ধরে কোর্টবাজারের একটি হোটেল থেকে গোপন আঁতাত করে রান্না করা খাবারের প্যাকেট তৈরি করা হলেও গুণগতমান নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

গুরুতর অভিযোগ উঠেছে, পাকিস্তানি বয়লার মুরগি দিয়ে সাদা ভাত ১৮০ টাকা করে প্রতি প্যাকেট রান্না করা খাবার ক্রয় করা হলেও মূলত ১৪০ থেকে ১৫০ টাকার মধ্যে এ খাবার পাওয়া যেত। এছাড়াও ৫পিস গরুর মাংস দিয়ে সাদা ভাত প্রতি প্যাকেট ৯০ থেকে ১০০ টাকায় সহজে পাওয়া গেলেও ক্রয় করা হচ্ছে ১২৫ টাকা করে। প্রতিদিন শুধুমাত্র বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের জন্য হোটেল থেকে খাবার ক্রয় করে প্রায় ২ লক্ষ ৩০ হাজার ৪শত টাকা।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে প্রকাশ, রোহিঙ্গাদের জন্য প্রতিদিন ২ লক্ষ টাকার রান্না করা খাবার ক্রয় করার জন্য কোটেশন আহ্বানের নিয়ম থাকলেও এনজিও সংস্থা ফ্রেন্ডশিপ তা না করে কোনো প্রকার কোটেশন ছাড়াই আল-মজিদিয়া হোটেল থেকে অতিরিক্ত মূল্য দিয়ে রান্না করা খাবার ক্রয় করছে। রান্না করা খাবার প্যাকেট বিতরণে ব্যাপক অনিয়ম দেখা দেয়।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে, এনজিও সংস্থা ফ্রেন্ডশিপ ইন্টারন্যাশনালের জি.বি.ভি প্রোগ্রাম ম্যানেজার সানজিদা আক্তার জানান,  রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে গণসচেতনতামূলক সভা হয়ে থাকে। মূলত আমরা এ সভায় অংশগ্রহণকারী রোহিঙ্গাদেরকে রান্না করা খাবার বিতরণ করি। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, হোটেল থেকে রান্না করা খাবারের প্যাকেটে তরকারি (ডাল) দুর্গন্ধ হয়েছে বলে তিনি শুনেছেন। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এদিকে উখিয়ার সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের প্রশ্ন, আন্তর্জাতিক ও দেশীয় দাতা সংস্থার পক্ষ থেকে রোহিঙ্গাদেরকে চাল, ডাল, তৈলসহ নিত্য পণ্য সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে। এর পরও এনজিও সংস্থা ফ্রেন্ডশিপ ইন্টারন্যাশনাল প্রতিদিন হাজার হাজার প্যাকেট রান্না করা খাবার কেন রোহিঙ্গাদের মাঝে বিতরণ করে বিষয়টি রহস্য জনক।

অনেকের মতে রান্না করা খাবারের প্যাকেট রোহিঙ্গাদের মাঝে বিতরণের নামে দাতা সংস্থার বরাদ্দকৃত অর্থ নয়ছয় করার উদ্দেশ্যে এ কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। সচেতন নাগরিক সমাজ বিষয়টি তদন্ত করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট দাবি জানিয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × 3 =

আরও পড়ুন