উখিয়ায় ৫ ডেঙ্গু রোগী সনাক্ত, আতঙ্কিত স্থানীয় ও রোহিঙ্গারা

fec-image

কক্সবাজারের উখিয়ায় গত এক সপ্তাহে ৫ জন ডেঙ্গু রোগী সনাক্ত হয়েছে। এদের ৪ জন স্থানীয় ও ১ জন উদ্বাস্তু রোহিঙ্গা। এ রোগ সম্পর্কে পূর্ব ধারণা না থাকায় শঙ্কিত হয়ে পড়েছে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠি। তবে ডাক্তাররা জানান সনাক্তকৃত রোগীদের সকলে ভাল আছে। সুতরাং এতে আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তারা।

স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানান উখিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভারপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডাক্তার মেরাজ হোসেন চয়ন।

তিনি জানান, উখিয়া হাসপাতালে গত এক সপ্তাহে ৩ জন স্থানীয় ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। তম্মধ্যে ১ জনের অবস্থা অগ্রগতি হওয়ায় তাকে ছাড়পত্র প্রদান করা হয়। অন্য ২ জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

এছাড়াও উখিয়ার একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে ১ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তাছাড়াও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার রিপোর্ট অনুযায়ী ডেঙ্গু আক্রান্ত ১ জন রোহিঙ্গাকে ক্যাম্প থেকে সরাসরি কক্সবাজার জেলা হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

উখিয়ার কুতুপালং মেগা ক্যাম্পের মধুরছড়া, বালুখালী ৯,১১,১০ এবং ১৭নং ও জামতলী, তাজনিমার খোলা ক্যাম্পের রোহিঙ্গাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, বাংলাদেশের সর্বত্র ডেঙ্গু রোগ ছড়িয়ে পড়ার খবরে রোহিঙ্গারা আতঙ্কিত ও শঙ্কিত। ডেঙ্গু রোগ সম্পর্কে তাদের কোন পূর্ব ধারণা নেই। এ জন্যে তারা এই রোগ মোকাবেলা এবং প্রতিরোধে বিভিন্ন এনজিও, সরকারি, বেসরকারি সংস্থার দৃষ্টি কামনা করেছেন।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে স্বাস্থ্য সেবায় নিয়োজিত এমএসএস এর গণসংযোগ কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন বলেন, এখনো পর্যন্ত রোহিঙ্গা ডেঙ্গু রোগী পাওয়া যায়নি, তবে জ্বর, সর্দি, কাশি নিয়ে প্রতিদিন নতুন নতুন রোগী চিকিৎসা নিতে আসছে। রোহিঙ্গারা যে ঝুঁকিতে নেই, সেটি বলা যাবেনা, কারণ ক্যাম্পে পাহাড়ের নিচে অনেক গর্তে, নালায় জমাট বাধা পানিতেও এডিস মশার জন্ম হতে পারে। কিন্তু এখনো পর্যন্ত তারা ভাল আছে বলে তিনি জানান।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 + seven =

আরও পড়ুন