একই ফুডকার্ড বন্টন: পুরাতন রোহিঙ্গাদের বিক্ষোভ, ইটপাটকেলে আহত ১২ এপিবিএন সদস্য

fec-image

নতুন ও পুরাতন সকল রোহিঙ্গাদের মাঝে একই ধরণের ফুডকার্ড দেয়ার প্রতিবাদে কক্সবাজারের টেকনাফ শরণার্থী শিবিরে বিক্ষোভ করেছে ৯২ সালে আগত নিবন্ধিত পুরাতন রোহিঙ্গারা।

২০১৭ সালের জুন মাস থেকে মিয়ানমার থেকে আগত রোহিঙ্গাদের ফুডকার্ড ও তাদের ফুডকার্ড একই করায় রোববার ভোর থেকেই নয়াপাড়া নিবন্ধিত ক্যাম্পে বিক্ষোভ করে পুরাতন নিবন্ধিতরা। পরিস্থিতি শান্ত করতে গেলে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ান (এপিবিএন) সদস্যদের লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছোঁড়ে রোহিঙ্গা নারীরা। এতে এপিবিএনের ১২ সদস্য আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এপিবিএন ৫ রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে।

কক্সবাজার ১৬ এপিবিএন এর অধিনায়ক এসপি মো. তারিকুল ইসলাম তারিক বলেন, ফুড কার্ড বিষয়টি নিয়ে বর্তমানে ক্যাম্পের পুরাতন রোহিঙ্গাদের মধ্যে অসন্তোষ বিরাজ করছে। এপিবিএন সদস্যরা তাদের শান্ত করার চেষ্টা করলে রোহিঙ্গা নারীরা উল্টো উত্তেজিত হয়ে দফায় দফায় বিভিন্ন স্পটে ইট-পাটকেল মেরে ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টি করে। দুপুর ১১টা পর্যন্ত রোহিঙ্গা নারীরা উশৃঙ্খলতা করতে থাকে। ওই সময় তাদের ইটপাটকেলের আঘাতে এপিবিএনের ১২ জন সদস্য আহত হয়েছেন। এছাড়া পুলিশের অস্ত্র টানা হেচড়া শুরু করলে পুলিশ জানমাল রক্ষায় ও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য ৫ রাউন্ড উপরের দিকে শট গানের গুলি করে। এতে রোহিঙ্গা নারীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে পালিয়ে যায়।

তিনি জানান, সন্ধ্যা নাগাদ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। কোনো রোহিঙ্গা ঘটনাস্থলে নেই। যে যার মতো করে শিবিরে চলে গেছে। আহত এপিবিএন সদস্যদের নিজেদের মধ্যে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সোমবার শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার (আরআরআরসি) ও জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা (ইউএনএইচসিআর) কর্তৃপক্ষ ফুড কার্ড বিষয়ে রোহিঙ্গাদের সাথে বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নেবে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four + 8 =

আরও পড়ুন