এসএসসি ৯৯ ব্যাচ কক্সবাজার জেলার অনলাইন ভিত্তিক শিশুদের সাহিত্য-সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা শুরু

fec-image

এসএসসি ৯৯ ব্যাচ কক্সবাজার জেলা কর্তৃক শিশুদের অংশগ্রহনে অনলাইন ভিত্তিক সাহিত্য-সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা প্রজন্ম-৯৯ শুরু হয়েছে। এসএসসি ৯৯ ব্যাচের সদস্যদের সন্তানরা বাড়িতে বসেই এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবে। বাড়িতে ধারণকৃত ভিডিও পাঠিয়েই অংশ নেয়া যাবে প্রতিযোগিতায়। এ কারণে এ প্রতিযোগিতা নিয়ে এসএসসি ৯৯ ব্যাচ পরিবারে এখন চলছে উৎসব আমেজ।

সাহিত্য-সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা প্রজন্ম-৯৯ এর আহ্বায়ক অহিদুল ইসলাম ভূট্টো ও সদস্য সচিব শাহানা মজুমদার চুমকি জানিয়েছেন-করোনা ভাইরাস মহামারী আকারে আমাদের দেশেও ছড়িয়ে পড়েছে। এ কারনে বিগত ২ বছর শিশুদের শিক্ষাজীবন অচল হয়ে পড়েছে। এমন দূঃসময়ে এসএসসি ৯৯ ব্যাচ কক্সবাজার আয়োজিত এ প্রতিযোগিতা শিশুদের সাহিত্য-সংস্কৃতির চর্চা ও মেধা বিকাশে অবদান রাখবে।

তিনি আরও জানান-প্রতিযোগিতায় ৭টি গ্রপে বিভক্ত হয়ে শিক্ষার্থীরা অংশ নেবে। এই লিংকে প্রবেশ করে https://forms.gle/R7JoYjev83U9QcnH9 প্রত্যেক প্রতিযোগী গুগল ফর্ম ফিলাপ করে ভিডিও আপলোড করবে, প্রতিটি গ্রুপে ৯৯ এর দুইজন বন্ধু দায়িত্বে থাকবে। ফরম ফিলাপ বা প্রয়োজনীয় তথ্যের জন্য প্রতিটি গ্রুপে দায়িত্বে থাকা ৯৯ বন্ধুদের সহযোগিতা নিতে পারবে। এরমধ্যে শুণ্য থেকে ৪ বছর বয়সী শিশুদের নিয়ে গঠিত ‘সাঙ্গু’ গ্রপে প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্বে রয়েছে এরশাদুল করিম ও শহীদুল্লাহ খান। সাঙ্গু গ্রুপের ৪টি ইভেন্ট এর মধ্যে রয়েছে-১. বাচ্চাদের শারীরিক অঙ্গভঙ্গি (হাটা, কথা বলার চেষ্টা ইত্যাদি), ২. ছড়া (বাংলা/ইংরেজি), ৩. সুরা/ক্বেরাত/দোয়া, ৪. তিন-চার লাইনের গান বা অভিনয়ের ছোট ক্লিপ।

প্লে, নার্সারি, কেজি পড়ুয়া শিশুদের নিয়ে গঠিত ‘নাফ’ গ্রুপের প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্বে রয়েছে মুজিব উল্লাহ চৌধুরী ও শাহনাজ মজুমদার চুমকি। নাফ গ্রুপের ৪টি ইভেন্ট এর মধ্যে রয়েছে-১. সূরা/আযান ২. ছড়া (বাংলা/ইংরেজি), ৩. আত্ম পরিচিতি (পিতা-মাতা, নিজের, দেশে ও সমাজকে নিয়ে কিছু বলা) ৪. যেমন খুশি তেমন সাজো।

প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নিয়ে গঠিত ‘রেজু খাল’ গ্রপের প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্বে রয়েছে শোবেস্থা সাইরিন ও সানুম তানজিন তিন্নি। রেজু খাল গ্রুপের ৪টি ইভেন্ট এর মধ্যে রয়েছে-১. ছড়া (বাংলা/ইংরেজি), ২. সূরা/আযান/হামদ/না’ত ৩. গান/নৃত্য ৪. যেমন খুশি তেমন সাজো।

তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নিয়ে গঠিত ‘কর্ণফুলী’ গ্রপের প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্বে রয়েছে সোয়েব সাঈদ ও আফসানা জেসমিন পপি। কর্ণফুলী গ্রুপের ৪টি ইভেন্ট এর মধ্যে রয়েছে-১. সূরা/ছড়া/কবিতা আবৃত্তি, ২. ছবি আঁকা ৩. অভিনয়, ৪. গান/নৃত্য।

পঞ্চম ও ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নিয়ে গঠিত ‘বাঁকখালী’ গ্রপের প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্বে রয়েছে শাহনেওয়াজ ইউসুফ সুমন ও আফরোজা নাসরিন হক। বাঁকখালী গ্রুপের ৪টি ইভেন্ট এর মধ্যে রয়েছে-১. সূরা/কবিতা আবৃত্তি, ২. বক্তৃতা/উপস্থাপনা, ৩ গান/নৃত্য, ৪. ছবি আঁকা/অভিনয়।

সপ্তম ও অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নিয়ে গঠিত ‘মাতামুহুরী’ গ্রপের প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্বে রয়েছে হাসিবুল আলম ও হানিফ মোহাম্মদ। মাতামুহুরী গ্রুপের ৪টি ইভেন্ট এর মধ্যে রয়েছে-১. বক্তৃতা/উপস্থাপনা. ২. সূরা/কবিতা আবৃত্তি, ৩. সংগীত ৪. চিত্রাংকন।

নবম ও দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নিয়ে গঠিত ‘কোহেলিয়া’ গ্রপের প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্বে রয়েছে আব্দুস সালাম ও আল মাহমুদ ।কোহেলিয়া গ্রুপের ৩টি ইভেন্ট এর মধ্যে রয়েছে-১. গান/নৃত্য, ২. কবিতা আবৃত্তি, ৩. রচনা (বিষয় : এসএসসি ৯৯ ব্যাচ কক্সবাজার জেলা)।

গত ১৫ জুলাই থেকে শুরু হওয়া এ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার শেষ সময় ৩১ জুলাই রাত ১২ টা। প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহনের জন্য এসএসসি ৯৯ ব্যাচ কক্সবাজার জেলার ওয়েব সাইটে গিয়ে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করা যাবে। একজন প্রতিযোগি একটি গ্রপে সবকটি ইভেন্টে অংশ নিতে পারবে। তবে একটি ইভেন্টের একাধিক অপশনে অংশ নিতে পারবে না।

আগামী ১৫ আগষ্ট প্রতিযোগিতার ফলাফল ঘোষণা করা হবে। প্রত্যেক অংশগ্রহণকারীকে সনদপত্র প্রদান করা হবে। প্রতিটি গ্রপের প্রতিটি ইভেন্টে ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান বিজয়ীদের পুরস্কার ও সনদপত্র প্রদান করা হবে। পহেলা আগস্ট এর পর থেকে ধারাবাহিকভাবে প্রত্যেক প্রতিযোগীর ভিডিও আমাদের ফেসবুক গ্রুপ https://www.facebook.com/groups/276389295804470/ ও ‘প্রজন্ম ৯৯’ ফেসবুক পেজে আপলোড করা হবে।

এসএসসি ৯৯ ব্যাচ কক্সবাজার জেলা শাখার সভাপতি শওকত ওসমান ফারুক ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহরিয়ার বিন নাছির জানিয়েছেন-এসএসসি ৯৯ ব্যাচ কক্সবাজার জেলা শাখা নিজেদের চিত্ত বিনোদনের পাশাপাশি সদস্যদের যে কোন সংকট মোকাবেলায় কাজ করে। পাশাপাশি ৯৯ ব্যাচ কক্সবাজার জাকাত ফান্ডের মাধ্যমে ধর্মীয় ও জনকল্যাণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। এমনকি অনেক অসহায় সদস্যদের স্বচ্ছল জীবন দিতে এ সংগঠন সহায়তার হাত প্রসারিত করে যাচ্ছে। প্রতিবছর শীতার্তদের সংগঠনের পক্ষ থেকে দেয়া হয় শীতবস্ত্র।

ব্যাচের কোন দরিদ্র বন্ধু অসুস্থ হলে পাশে দাঁড়ায় ৯৯ ব্যাচ কক্সবাজার। যার প্রমান রামুর ইমাম হোসেন। বুকে টিউমার নিয়ে যিনি মৃত্যুর প্রহর গুনছিলেন। অথছ ৯৯ ব্যাচ কক্সবাজার, রামু, উখিয়ার বন্ধুদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় ইমাম হোসেন এখন সুস্থ জীবন ফিরে পেয়েছেন। এছাড়াও প্রতিবছর এসএসসি ৯৯ ব্যাচ কক্সবাজার পারিবারিক মিলনমেলা, ঈদ পূনর্মিলনী, ইফতার মাহফিল সহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানাদি সফলভাবে আয়োজন করে সর্বত্র সাড়া জাগিয়েছে।

শিশুদের মেধা বিকাশে এসএসসি ৯৯ ব্যাচ কক্সবাজার এর প্রজন্ম ৯৯ প্রতিযোগিতা অনেক অনেক কার্যকর ভূমিকা রাখবে। এ ধরনের আয়োজন আমাদের মতো কচিকাঁচা শিশুদের আগামী দিনে সুনাগরিক হতে প্রেরণা যোগাবে। প্রজন্ম ৯৯ প্রতিযোগিতা সফলভাবে সম্পন্ন করতে তারা কক্সবাজার জেলার সকল ৯৯ বন্ধুদের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 + 4 =

আরও পড়ুন