করোনা টিকা গ্রহণে টার্গেট ছাড়িয়ে গেল কুতুবদিয়া

fec-image

করোনা টিকা প্রদানের দ্রুত টার্গেট পুরণে দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়া জেলায় শীর্ষে। করোনা প্রতিরোধে প্রচারণা আর জনসচেতনা বাড়াতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স অগ্রনী ভূমিকা রাখায় টিকা প্রদানের হার ৫৩.৪৬ ভাগ।

প্রথম দিকে টিকা গ্রহণে আগ্রহ কম থাকলেও পরে অভাবনীয় সারা পায় করোনা ভ্যাকসিন। হাসপাতালে ভোর থেকে টিকা প্রদান শুরু করেও কখনো কখনো ভীড় সামলাতে পুলিশের সহায়তা নিতে হয়েছে। নিয়মিত টিকা প্রদান ছাড়াও গণটিকা, ইউনিয়ন পরিষদ, সর্বশেষ কমিউনিটি ক্লিনিকে সপ্তাহব্যাপী চলে টিকা কার্যক্রম।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সূত্র জানায়, উপজেলায় টিকা প্রাপ্ত উপযোগী মানুষ রয়েছে ১ লক্ষ ৯ হাজার। নিবন্ধন হয়েছে ৬৪ হাজার ৬৩৪ জনের। সরকারি টিকার টার্গেট রয়েছে ৪০ ভাগ। গত বৃহস্পতিবার কমিউনিটি ক্লিনিকে টিকা প্রদানের শেষ দিন পর্যন্ত উপজেলায় মোট টিকা প্রদান করা হয়েছে ৫৮ হাজার ২৭৫ জনকে। শতকরা ৫৩.৪৬ ভাগ টিকার আওতায় এসেছে দ্বীপ কুতুবদিয়ায়।

এ ছাড়া শনিবার (৪ ডিসেম্বর) স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অন্তত ২০০ জন নারী-পুরুষ টিকা নিয়েছেন বলে স্বাস্থ্য সহকারি জসীম উদ্দিন জানান। দক্ষিণ ধুরুং আলী ফকির ডেইল কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইচসিপি আবুল হাসনাত জানান, সরকারি নির্দেশনা ছাড়াও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্থানীয় পর্যায়ে টার্গেট পুরণে বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করায় দ্রুত সরকার প্রদত্ত টার্গেট বাস্তবায়ন সম্ভব হয়েছে।

হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা: রেজাউল হাসান বলেন, সরকারি টার্গেট ছিল টিকা উযোগী মানুষের ৪০ ভাগ। সেখানে তারা গত বৃহস্পতিবারই ৫৩.৪৬ ভাগ মানুষকে টিকার আওতায় আনতে সক্ষম হয়েছেন। টার্গেট দ্রুত বাস্তবায়নে জেলায় অন্যান্য উপজেলার চেয়ে তারা শীষে রয়েছেন। তবে টার্গেট পুরণে বিশেষ করে গণটিকা সহ দ্বীপের প্রত্যন্ত ইউনিয়ন পরিষদ, কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোতে কর্মী প্রেরণ সহ আনুসাঙ্গিক খরচ মেটাতে সরকারি কোন বরাদ্ধ দেয়া হয়নি। উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা ডা: জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী সহ তাদের ব্যক্তিগত অর্থে ও জনস্বার্থে টিকা বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছেন বলে জানান তিনি।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seventeen − five =

আরও পড়ুন